Arsenic Scene 6 : The Killing

Scene 6

Agnes’ bedroom. Agnes is lying on her bed. She is barely conscious. Kishenlal is fretting and pacing the front of the room. Jasodha is trying to give Agnes a glass of milk.

Kishenlal: দুধটা খেল ?

Jashoda: কোথায় খেল – জা একটু অনেক কশটে নিল – তাও তো সঙ্গে সঙ্গে বমি করে দিল।

Kishenlal: দুই দিন থেকে কিছু খাচ্ছে না। সব কিছু উল্টি হয় যাচ্ছে। কোন ডাক্তার আসছে না – কোন দাওয়াই পরছে না – আমি কি করি বুঝতে পারছি না।

Jashoda: এক মাস ধরে আগ্নেস বিটিয়া ভুগে চলেছে – ওর কষ্ট আমি চোখে দেখেতে পারছি না – তুমি কিছু কর।

Kishenlal: আমি কি করব জাসদা – জেমস সাহেব কে আমি বলেছি – আপনি বিটিয়ার জন্যে ডাক্তার মাঙ্গান। আমার কথা কানেই তলে নি – বলল – কিসেনলাল তুমি এখন বুড়ো হয়েছ ওসব তোমাকে ভাবতে হবে না।

Jashoda: কবে ডাকবে ডাক্তার – আমার বিটিয়া মরে গেলে ডাকবে।

Kishenlal: আমি জানি না – জাসদা – ওই লোকটার কি মতলব আমি বুঝতে পারি না।

Jashoda: চোখের সামনে আমার বিটিয়া তিল তিল করে মরচে আর তুমি হাত গুটিয়ে বসে আছ। এখনো আগ্নেস্কে বাচাবার সময় আছে।

Kishenlal: আমি কি করি – কে আমাদের মদত করবে ?

Jashoda: তুমি ডাক্তার বিব্বস এর কাছে যাও। আগ্নেস বিটিয়ার সোনার পা ওই লাগিয়ে দেইয়াছিল। তুমি যাও – এখুনি যাও – সব বল ওনাকে – এখুনি আস্তে বল একবার আগ্নেস্কে দেখে জেতে।

Kishenlal: এত রাতে – ডাক্তার কি আর আস্তে চাইবে।

Jashoda: ওকে বল – আগ্নেসের বাচা মরার সাভাল – আসতেই হবে ওনাকে। তুমি দেরি কর না এখুনি যাও।

Kishenlal: কিন্তু জেমস সাহেব যখন জানতে পারবে আমরা ওকে না বলে ডাক্তার ডেকেছি।

Jashoda: সাহেব জা করে নেবে – করে নিক – তুমি যাও।

Exit Kishenlal to call Doctor Bibbs. Jashodha starts to pray next to Agnes’ bed.

Jashoda: প্রভু – দয়া কর প্রভু – আমার বিটিয়া কে বাচিয়ে দে প্রভু। আমি দুয়া মাঙ্গছি ভগগবান – আজ আমার এই কথা তোকে রাখতে হবে – আমার আগ্নেস্কে আমার কাছ থেক নিস না প্রভু। ( She starts sobbing next to the bed )

Enter James.

James: জাসদা বাই – তুমি এত রাতে এখানে কি করছ ?

Jashoda: আমি দিদিমনি কে দুধ খাওয়াবার চেষ্টা করছিলাম – পারলাম না সব উল্টি করে ফেলে দিল।

James: তোমার ওকে দুধ খায়য়াবার দরকার নেই। ওর দেখা শুনা গুলাবী করছে।

Jashoda: কিরকম দেখা শুনা করছে তা তো নিজের চখেই দেখছি – তিন দিন ধরে বিটিয়া কিছু খায় নি – আপনি জানেন।

James: অত কথা তোমার চিন্তা করতে হবে না জাসদা বাই। আগ্নেসের ভাল মন্দ আমাকে বুঝতে দাও।

Jashoda: আপনি মালিক – আর আমরা কিছু নই – ৫ বছর বয়স থেকে আমার কোলে মানুষ হয়েছে আগ্নেস মেমসাহেব।

James: কিশেনলাল কে দেখছি না – সে কথায় ?

Jashoda: ও ডাক্তার ডাক্তে গেছে।

James: কি বললে – ডাক্তার ডাকতে – আমি তো হুকুম দি নি কোন ডাক্তার ডাকার।

Jashoda: আমি বলেছি ওকে ডাক্তার ডেকে আনতে।

James: এত আস্পর্ধা – মন চাইছে ……… ( James moves to front off stage and speaks to audience only) মাথা ঠাণ্ডা রাখ জেমস মাথা ঠাণ্ডা রাখ – এই বুরিয়া কে সায়েস্তা করবার সময় পরে আসবে – আগে ডাক্তার কে ভাগাতে হবে। ও যেন কিছুতেই না বুঝতে পারে আগ্নেসের শরির খারাপের আসল কারণ। ( Turns back to address Jasodha) কিশেনলাল কতখন আগে গেছে ডাক্তার এর কাছে ?

Jashoda: আধা ঘন্টা হয়ে গেছে সাহেব – ডাক্তার এই এল বলে।

There is urgent knocking on the door.

Kishenlal: জাসধা – দরওয়াজা খুল – জলদি।

Jasodha opens the door. Enter Kishenlal with Dr Bibbs.

James: এই তো ডাক্তার বিব্বস এসে গেছেন – এতো রাতে আপনাকে বিরক্ত করবার জন্য মাপ চাইছি।

Dr Bibbs: না না – এটাত আমাদের duty. তার উপর যখন সুনলাম আগ্নেস অসুস্থ তখন না আসার প্রশ্নই অঠে না। কি হয়ছে আগ্নেসের।

James: সেরকম কিছু না ডাক্তার – এই সামান্য বদ হজম মনে হয় – একটু বমি, গা জর জর এই আরকি, আপনার দেখার ও তেমন দরকার নেই।

Dr Bibbs: এতদুর যখন এলাম তখন একবার দেখেই নি – কিশেনলাল খুব ভয় পেয়ে গেছে মনে হয়।

James: Oh you know these natives doctor – they are a superstitious bunch. আপনি আগ্নেস কে দেখতে এসেছেন – there she is.

Doctor Bibbs examines Agnes. Speaks to James with concern.

Dr Bibbs: ঠিক বুঝতে পারছি না – তবে রুগি severely dehydrated. আমি আর কয়েকটা টেস্ট করতে চাই। টেস্ট না করে কিছুই সঠিক বলতে পারব না। তবে acute food poisoning এর sympton অনেকটা এরকম হয়। ওকে কি খেতে দিচ্ছেন ?

James: না সেরকম তো আলাদা করে কিছু দিচ্ছি না। এই সাধারণ ফল মুল তার বেশি কিছু না।

Jashoda: আগ্নেস বিটিয়া দিনে এক দাফা কলকাতার ডাক্তারের দাওয়াই খাচ্ছে।

Dr Bibbs: ও তাই নাকি – দেখুন মিঃ কানিঙ্ঘাম আমার মনে হয় আগ্নেস কে immediately হাস্পাতালে ভরতি করা প্রয়োজন। আপনি দেরি করবেন না, কাল শকালে নিয়ে আসুন আমার চেম্বারে।

James: যাক ভাল হল আপনি এসে আগ্নেস কে দেখলেন – অনেকটা ভরসা পাচ্ছি – কাল সকালে আমি নিজে নিয়ে আসব আপনার কাছে – কেমন ?

Dr Bibbs: তাই আনুন – আর আজ রাতে কোন অশুধ দেবেন না – বলা যায় না অনেক সময় অসুধের থেকে বিপরিত প্রতিক্রিয়া হয়। জখন আসবেন অসুদের পুরিয়াটা আনবেন – আমি একবার দেখতে চাই।

James: হ্যা নিশ্চয় – তাই করব – আপনি কি গারি এনেছেন নাকি আমার গারিটা বলে দেব।

Dr Bibbs: না তার দরকার নেই – আমার গারি আছে – আজ চলি, অনেক রাত হল, কাল শকালে দেখা হবে, দেরি করবেন না আগে আগেই নিয়ে আসবেন কিন্তু।

James: আপনি চিন্তা করবেন না – first thing tomorrow – আমি নিয়ে আসব।

Dr Bibbs: আচ্ছা good night আজ আসি।

James: Good night doctor.

Exit doctor. James now turns on Kishenlal and Jasodha. His eyes are burning with suppressed anger.

James: কিসেনলাল তুমি এই বারিতে কত দিন আছ ?

Kishenlal: আমার মনে নেই সাহেব। আগ্নেস বিটিয়ার জন্মাবার আগে থেকে আমি এ বারিতে আছি।

James: জানও কিসেনলাল তোমাকে দেখে আমার কুকির কথা মনে পরে যায়। আমাদের পোষা কুকুর ছিল কুকি। আমাকে খুব ভালবাসত – সব সময় আমার সাথে থাকত। একদিন আমি কুকি কে নিয়ে শিকারে গিয়েছি, কুকি খুব ভাল গান ডগ ছিল, হাস শিকার করতাম আমরা। কুকির এক্টাই দোশ ছিল – শিকার মুখ থেকে ফেলতে চাইত না। সেই দিন কি হয়ছিল জানি না – maybe he was overexcited – যাই হোক ওর মুখ থেকে যখন আমি শিকার নিতে গেলাম – আমার হাতে দাত বসিয়ে দিল। ভাবতে পার কিসেনলাল আমার পোষা কুকুর আমার হাতে দাত বসিয়ে দিল। আমি কি করলাম – কি আর করব বল – একবার যে কুকুর দাত বসায় সে আর সুদ্রয়ে না – ওই খানেই ঝিলের ধারে কুকির মাথার উপর পিস্তলের নল রেখে trigger টীপ্লাম। শাড়া জামা হাত রক্তা রক্তি – কুকির মরবার আর্তনাদ – সে এক বিচ্ছির ব্যাপার।

Kishenlal: এ গল্প আমাকে কেন শোনাচ্ছেন কর্তা।

James: কেন শোনাচ্ছি – হারামি , নামাক হারাম সুয়রের বাচ্চা – তোকে আমি এইখানেই খতম করে –তোর লাশ নদিতে ফেলে দেব। শালা তুই আমার উপর চলাকি দেখাবি ভেবেছিস। তোকে আজ এখানেই শেষ করে দেব। (James has drawn a revolver from his coat pocket and there is black murder in his eyes – he finally reveals his true identity)

Jasodha: ছেরে দিন সাহেব দোহাই আপনার – আমরা বুঝি নি – আমাদের ভুল হয় গেছে – আমাদের মাপ করে দিন।

James: তোদের ছেরে দেব – কেন ছেরে দেব – আমার বিরুদ্ধে সাজিশ করবার জন্যে।

Jasodha: না সাহেব না – আমরা চলে যাব – অনেক দূর আমাদের দেশে ফিরে যাব – কোন দিন এখানে ফিরব না।

James: আর যদি ফিরিস তোদের লাশ আমি টুকরো টুকরো করে কুকুর দিয়ে খায়য়াব।

Jasodha: ফিরব না সাহেব – কসম দিচ্ছি – দোহাই আপনার – আমরা কোন দিন ফিরব না।

James: বেশ – এই তোর বাচবার একটাই উপায় – আজ রাতেই চলে জা – এই মুহুরতে চলে জা – কোন দিন ফিরে আসিস না – তোদের পোরা মুখ আর কখনও যেন দেখতে না হয়। জা দূর হয় জা – নিকল জা আমার বাড়ি থেকে।

James turns away from Kishenlal and Jashoda. Jashoda approaches Agnes bed slowly.

Jashoda: আমি পারলাম না বিটিয়া – আমি পারলাম না। মেমসাহেব কে আমি কসম দিয়েছিলাম, সেই কসম আজ রাখতে পারলাম না। ভাল থাক বিটিয়া – ভাল থাক। আমাকে চলে জেতে হবে। আমি হেরে গেলাম বিটিয়া, আজ আমি হেরে গেলাম। আমাকে তুই ক্ষমা করে দে।

(Exit Kishenlal and Jasodha)

James: ডাক্তার সব জেনে যাবে। আমি কি করি ? Think dammit think. That bas#@%d Kishenlal – ওদের আগেই শরান উচিত ছিল – ভুল হয় গেছে। কুছ পরোয়া নেই এখনও সময় আছে, কিন্তু আজ রাতেই কাজ সারতে হবে। গুলাবি – গুলাবী কথায় তুই ?

Gulabi enters.

James: এত কিছু হয় গেল তুই কথায় ছিলি ?

Gulabi: পাশের ঘর থেকে আমি সব শুনছিলাম মালিক। কিসেনলাল আর ওর বুরিয়াটা ভয় ওদের পুটলি পাটলা নিয়ে এই মাত্র সদর ফটক দিয়ে রেল স্টীশানের দিকে জেতে দেখলাম।

James: তার মানে এ বাড়ি একেবারে ফাকা।

Gulabi: হা মালিক – আমার দুই জন আর ও।

James: ওকে আজ রাতেই শেষ করতে হবে। তুই আমাকে মদত কর।

Gulabi: ও তো আধা বেহুঁশ আছে – ওকে অশুধ দেবে কি করে।

James: Inject করব, তুই ওকে তুলে ধর।

James mixes some arsenic with water in a glass, and prepares the lethal injection.

James: There is enough in that for an elephant – this should bloody well kill the b#@$h. ধর গুলাবী – তুলে ধর।

They inject the final dose of poison into her arm. Agnes is semi conscious and protests weakly but to no avail. As the poison enters her body she starts to spasm and then her body goes rigid and then limp. She is dead. The deed is done.

Gulabi: এ আমরা কি করলাম মালিক – এ কি করলাম।

James: খুন করলাম গুলাবী – খুন। এতো দিন একটু একটু করে মারছিলাম, আর আজকে একেবারে খতম করে দিয়েছি। এই নে এটা খেয়ে নে – সাহস বারবে।

Gulabi: তুমি কি করে এখন খেতে পারছ – তুমি মানুষ না পিশাচ?

James: (He pours 2 shots of whisky – gives one to Gulabi and drains the other one himself – raising a toast) আমাদের সোনালি ভবিশতের অপেক্ষাতে। Cheers.

Gulabi: আমি পারব না খেতে। ওর চোখ এখন খোলা আছে সাহেব – ও আমাদের দেখছে।

James: ভয় নেই গুলাবী – ও আমাদের আর কোন ক্ষতি করতে পারবে না। এই দ্যাখ ওর চোখ বুজে দিলাম।

Gulabi: এ ভাবে ওকে ফেলে রাখতে পারবে না আমাদের ওকে লুকাতে হবে।

James: লুকাব কেন পাগ্লি – কবর দেব।

Gulabi: কবে দেবে কবর ?

James: কালকেই দেব। তুই জা, পাদ্রি কে খবর কর – বলবি আগ্নেস দিদিমনির দেহান্ত হয়ছে – কাল শকালে কবর করতে চাই।

Gulabi: লাশ কি করে নিয়ে যাবে মালিক। ডোম পারার গনযাল্ভেয আর লালু সরদার কে খবর করব ?

James: ভাল বলেছিস। বলবি তুরান্ত এখানে হাজির হতে, জেমস সাহেব ডেকে পাঠিয়েছে।

Gulabi: ওদের টাকা দিতে লাগবে – আছে আপনার কাছে ?

James: এটা নিয়ে জা – বলবি বাকি কাজ শেষ হলে পাবে। তুই জা।

Gulabi: জি মালিক।

Exit Gulabi

James: My dear lovely Agnes – তুমি আমাকে ছেরে কত দূরে চলে গেলে। আমি এখন কি করি। কালকে তোমাকে বাক্সে ভরে মাটির তলায় পুতে ফেলবে – আমি খুব কাদব আগ্নেস। সবাই ভাববে আমি দুঃখে ভেঙ্গে পরেছি। Dear Agnes, I hope you are in a happy place now. আমি জানি তুমি আমাকে কত ভালবাসতে, তুমি আমাকে সব উজার করে দিলে – বদলে কি পেলে আগ্নেস ……… বদলে কি পেলে।

Lights fade out. Off screen we hear the sound of Agnes funeral and burial.

A wake procession carrying the body of a woman (Agnes) bearing lanterns comes through the audience and upto the stage led by the pastor. The pastor reads out the solemn service. Agnes body is commited to the earth.

UNTO Almighty God we commend the soul of our dear departed, and we commit her body to the ground; earth to earth, ashes to ashes, dust to dust.

The Lord be with you. And with thy spirit. Let us pray. Lord, have mercy upon us. Christ, have mercy upon us. Lord, have mercy upon us.

OUR Father, who art in heaven, Hallowed be thy Name. Thy kingdom come. Thy will be done on earth, As it is in heaven. Give us this day our daily bread. And forgive us our trespasses, As we forgive those who trespass against us. And lead us not into temptation; But deliver us from evil. Amen.

The church bells toll for Agnes

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s