Arsenic Scene 7 – The Graveyard

Scene 7

Church graveyard. Night time. Scary spooky atmosphere. James and Gulabi with lanterns and shovels have come to dig up the body of Agnes and cut of the golden foot. They creep in stealthily on their terrible mission. (watch original Omen 1 graveyard scene for inspiration and atmosphere + dogs)

James: শশশশ – সাবধান একেবারে শব্দ করবি না।

Gulabi: আমি অন্ধকারে কিছু দেখতে পারছি না। মাজ রাতে আমাকে কোথায় নিয়ে এলে।

James: চুপ – চুপ কর বলছি না – কেউ আমাদের শুনে নেবে।

Gulabi: এ আমাকে কথায় এনেছ সাহেব – এ যে গোরস্থান।

James: হ্যা এখানেই গত কাল আমরা আগ্নেস কে সমাধি করেছি।

Gulabi: রাম রাম রাম রাম – এ জাগা ভাল নয় মালিক – গুলাবির ভয় করছে।

James: কিসের ভয় – কয়েকটা পুরনো হার কঙ্কাল্কে আমি ভয় পাই না। তুই আমার সাথে থাক, ভয় পাস না – আমি সব সামলে নেব।

Gulabi: আগ্নেস দিদির লাশ এখনও ঠান্ডা হয় নি – ওর আত্মা ইনসাফ চাইছে – তুমি আমাকে এখানে কেন আনলে সাহেব – আমার যে পা কাপছে।

James: বেওাকুফি করিস না গুলাবী – এখানে না এসে আগ্নেস্কে খুরে বার করব কি করে।

Gulabi: হায় রাম – লাশ খুরে তুলবে – এত পাপ কাজ করবে তুমি। না না – এ আমি পারব না।

James: পারতে হবে গুলাবী – জানিস ওই সোনার পায়ের কত দাম ? কম করে ২৫ লাখ টাকা – ওজন না করে পাক্কা বলা যাবে না, আর বেশিও হতে পারে।

Gulabi: ২৫ লাখ ……… কি করতে হবে আমাদের ?

James: খুব সহজ গুলাবী। লাশ তুলে সোনার পা কেটে নেব, তার পর আবার লাশ কবর করে মাটি দিয়ে দেব। এখনও মাটি নরম আছে খুরতে মুশকিল হবে না। ভাল করে দ্যাখ চিনতে পারছিস আগ্নেসের কবর টাকে ?

Gulabi: ওর পা কাটতে হবে – এ কাজ আমি পারব না সাহেব, কিছুতেই পারব না।

James: তোকে কিছু করতে হবে না, জা করবার আমিই করব – তুই শুধু বাতিটা ধরবি আর নজর রাখবি চার দিক।

Sound of howling dogs.

Gulabi: ও কিসের আওয়াজ ? শিয়াল কুকুর এতো কথা থেকে এল ? ওঃ কি হিংস্র শব্দ। ফিরে চলো সাহেব ওরা দিদিমনির লাশ পাহারা দিচ্ছে। আমাদের পেলে টুটি ছিরে ফেলবে।

James: কিছু করবে না – ওই যে অইত – অইত মনে হয় আগ্নেসের কবর। আয় আয় তারা তাড়ি আয়।

They reach Agnes’ grave.

James: হ্যা এইত “ In memory of my dear beloved wife Agnes Cunninham….” ঠিক আছে – দেরি নয়, তুই আলোটা উচু করে ধর, আমি খুরছি।

He digs for some time. There is sound of shovel digging into earth and he is panting with exertion. Finally the coffin is exposed. They open the lid.

James: খুলেছে – দে আমাকে করাতটা দে।

Gulabi: এই নাও করাত। তারা তারি কর ওই কুকুরের চোখ গুল আগুনের ভাটার মত লাল হয়ে জলছে। তুমি তারা তারি কর।

James proceeds to saw of the foot.

Gulabi: সাহেব – আগ্নেস দিদির চোখ আবার খুলে গেছে, মরবার সময় বন্ধ ছিল এখন আবার খুলে গেছে। ও যেন ঠিক তোমার দিকে তাকিয়ে আছে।

James: কি বললি খুলে গেছে চোখ – হ্যা তাইতো – তুই ঠিক বলেছিস কিন্তু খুলল কি করে। জাকগে আবার বুজে দিচ্ছি এইজে…।

Gulabi: সাহেবে দিদির চোখ বুজছে না।

James: হ্যা আমি ওর চোখ বন্ধ করতে পারছি না – rigor mortis has set in – কি করি?

Gulabi: আমার রুমালটা দিয়ে ওর চোখ ঢেকে দেয়ে, তাহলে আর ভয় করবে না।

He continues sawing off the foot and eventually cuts it off.

James: ব্যাস কেটে ফেলেছি। দে আমাকে বস্তা দে।

Gulabi: সোনার পা – দিদি মনির সোনার পা… ( as she says this she starts to throw up violently)

James: তুই ঠিক আছিস ?

At this time the dogs set up a terrible howling. James and Gulabi look around fearfully. James decides to ditch trying to rebury the coffin.

Gulabi: ওরা টের পেয়ছে ? আমাদের ওরা ছারবে না ? হায় কপাল – এ কি ভুল করলাম – এরা নরকের কুকুর আমাদের টেনে নিয়ে জেতে এসেছে।

James: চুপ কর বলছি চুপ

Gulabi: পালাও সাহেব এখান থেকে প্রান থাকতে পালাও।

James: হ্যা চল – সোনার পা পেয়ে গেছি – কবর না পুতলেও চলবে। আমাদের কেউ সন্দেহ করবে না। দেশে এখন খুনে ডাকাত সব খানে ঘুরছে। এখানে আর থেকে কাজ নেই। চল গুলাবী চল, এখান থেকে পালাই।

Exit Gulabi and James to the sound of an oncoming storm and howling of dogs.

Voiceover (while this voiceover is going on the howling of the dogs almost dies down. A stealthy figure enter the scene in the dark. He has a wheelbarrow. He loads the body of Agnes into the barrow. The sound of earth being shovelled can be heard. The lights fade out.)

জেমস আর গুলাবি সোনার পা চুরি করে আগ্নেসের লাশ খোলা রেখে পালিয়ে গেল। কিন্ত শকাল বেলা কেউ টের পেল না । রাতে এক অদৃশ্য হাত এসে কবর ভরাট করে ফেলল। এক ছায়ামুরতি সরিয়ে ফেলল আগ্নেসের দেহ লকচক্ষুর সামনে থেকে। কোনও তদন্ত হল না – জেমস আর গুলাবির উপর কেউ সন্দেহ করল না। সোনার পা জেমস নিজের ঘরে লুকিয়ে রাখল – জা জা চেয়েছিল সবি জেমস পেল কিন্তু তবু ওর শান্তি নেই। রাতে ঘুমতে পারে না, চোখ বুঝলে আগ্নেসের চোখ দুটো ভেসে অঠে – অস্ফুট প্রশ্ন করে – কেন জেমস কেন তুমি এমন করলে ?

শুন্য বাড়িতে জেমস আর গুলাবী – ওদের সম্পরক্টাও কেমন তেতো হয়ে গেছে। সামনা সামনি না পরলে আর কথা হয় না। কথা হলেও তা ঝগড়াতে গিয়ে দারায়ে। একে অপরের ছায়া পর্যন্ত মারাতে চায় না। ফাকা মেরিয়ায়ন কটেজে এই দুই প্রানি নিজের নিজের অন্ধকুপের মধ্যে বাচবার চেষ্টা করছে।

 

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s