২০৫৬

 Characters:

Rathin Sanyal – Father (Executive in a private company – mid 40s)

Maya Sanyal – Mother (Public relations officer at Intell Robotics)

Prem (Son of Rathin and Maya – university student)

Priya (Daughter of Rathin and Maya- 10 years old goes to school)

Sonya – Female House Hubot at Sanyals residence

Arjun – Male House Hubot at Sanyals residence

Subrata – Maya’s work colleague and CEO at Intell Robotics

Ulka – Hubot Female Revolutionary

Biplob – Hubot Male Revolutionary

Ashok – Hubot on bus

Cop 1 – Cop on Bus

Cop 2 – Cop on Bus

Sound Cues

Light Cues

Scene 1

gallery_pled_theatre_3

 

Music score starts when lights dim out

Spotlight only on narrator

শাল – ২০৫৬ ।

স্থান – কলকাতা শহর।

এটা কলি যুগ। হিন্দু শাস্ত্র মতে আমরা কলি জুগের একেবারে শেষের দিকে বাস করছি। মনুশ্য সভ্যতার অন্তিম নিধন হয়ত আমারা এই জন্মেই দেখতে পাব। হয়ত পুরন পোচে জাওয়া নস্ট সভ্যতার ধংশাবশেষ থেকে জেগে উঠবে নতুন সভ্যতার অঙ্কুর। হয়ত কিছুই আর জন্মাবে না। হয়তো এইখানেই জবনিকা পতন। কলিজুগের অনেক ব্যখা পাবেন শাস্ত্র ঘাঁটলে। তার ভেতর একটা মাত্রা কলিজুগ কে নিয়ন্ত্রন করে – গতি। জিবনের প্রত্যেক ক্ষেত্রে গতি ক্রমশ দ্রুত হয় উঠেছে। গতি  চিন্তার শত্রু, গতি চিন্তার বিপরীত। গতি জত বারবে চিন্তা ততই কমে যাবে। একটা সময় আসবে যখন গতি হবে তুঙ্গে – তখন চিন্তা আর থাকবে না। শাল ২০৫৬ – পৃথিবী বদলে গেছে। জেটাকে আমরা জানি সভ্য জগত বলে – সেখানে মানুশের জীবন সম্পূর্ণ ভাবে নিয়ন্ত্রিত – জন্ম থেকে ম্রিত্যু পর্যন্ত সবটাই নিয়মে বাধা। সব কাজ করে দেয় রোবট – বা হুবট । তাদের দেখতে ঠিক মানুশের মতন। সব কাজের জন্য হুবট কিনতে পাওয়া যায়। অফিসের কাজের জন্য, ঘরের কাজের জন্য – জুধ্যের হুবট, প্রেমের হুবট – যেরকমটি দরকার। সমাজ নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে একটা বিশাল ঘড়ির মতন। সব কিছু কাটায় কাটায় চলে। কেউ প্রশ্ন করে না, কেউ প্রতিবাদ করে না। আর অভিযোগ থাকলেও বা কি আশে যায়ে – কার কাছে যাবে সে অভিযোগ নিয়ে – সমাজ ব্যাবস্থা যারা স্থাপন করেছে তাদের চেনার রাস্তা নেই, তারা সব মুখোশ পরা।

তবে হ্যাঁ। এর বাইরে আরেকটা জগত আছে,  সভ্য জগতের গণ্ডির বাইরে। সেখানে জঙ্গল, সেখানে ভয়… সেখানে আমরা জাই না।

Music score – heavy industrial techno – merges into subway train background track.

Green blue light flicker to denote internal of train carriage. Projection on 1 side panel to show the movement of the outside through train window.

একটা সাবয়ে ট্রেনের কামরা – কিছু লোক দারিয়ে, কিছু বসে। একটা স্টপে দুজন পুলিস উঠে সবার তল্লাসি নিতে শুরু করল।

Cop 1: আমি পুলিস কনস্টেবল পাক্রাশি, এটা একটা সাধারন security check. কেউ জাগা ছেরে উঠবেন না – সবাই নিজের নিজের আধার কার্ড বার করে রাখুন – দেখি, আপনার ID দেখান।

সবাই নিজের নিজের মানি ব্যাগ থেকে id card বার করে দেখাতে থাকল। একটা লোক শুধু চুপ করে বসে আছে।

Cop 1: কই আপনার id দেখি।

Robot Ashok: আমার নেই।

Cop 1: তার মানে? জানেন না বিনা id তে চলা ফেরা বেয়াইনি। আমারা আপনাকে গ্রেপ্তার করতে পারি।

Robot Ashok: আমার সমন্ধে কি জানতে চান আপনারা। আমি সব বলে দিছি। নাম – অশোক। ঠিকানা – ৬৬ ফার্ন রোড, কলকাতা ৭০০০১৯। জন্ম তারিখ – বা – manufacturing date 21 June 2051. আমি কার্ড আনি নি।

Cop 1: ওঃ – এটা হুবট – একে বিনা id  বাসে কে উঠেতে দিয়েছে। এটাকে স্টেশনে নিয়ে জেতে হবে।

Cop 2: হুবট,  হাত ঘারের পিছনে রাখ – তমাকে আমাদের সাথে জেতে হবে।

Robot Ashok: কেন আমি কি অন্যায় করলাম যে আমাকে হাতকরা পরিয়ে নিয়ে জেতে হবে।

Cop 2: হুবট – অত প্রস্নের দরকার নেই- জা বলছি কর।

Robot Ashok: আমার নাম অশোক – আমাকে হুবট বলে ডাকবেন না। আমার একটা নাম আছে।

Cop 2: আস্কারা পেতে পেতে এগুলো মাথায় চরে গেছে।

Cop 1: হুবট অশোক হাথ মাথার পিছনে কর। এখুনি Do it now – this an order.

Robot Ashok: না আমি শুনব না – কি করবেন আপনারা।

পুলিশ লোকটাকে জর করে ধরবার চেষ্টা করতে একটা ধস্তা ধস্তি শুরু হয় গেল।

A red spot additional on the centre action

Robot Ashok: কত দিন চলবে আমাদের উপর জুলুম। এ জুলুম বন্ধ করুন। ছেরে দিন আমাকে।

Cop 1: ওর চিপ খুলে ফেল – এটা পাগল হয় গেছে। চিপ খুলে ফেল এখুনি।

Cop 2: পারছি  না – চিপ সকেট সিল করে ফেলেছে । We have to decommission this one now.

Robot Ashok: ছেরে দাও আমাকে – ছেরে দাও। ইঙ্কিলাব জিন্দাবাদ – রোবট আন্দোলন জিন্দাবাদ ।

Cop 1: শক্ত করে ধর – আমি decommission করছি।

Robot Ashok: আআআআআআআআআআআআআআ ………

Music score – heavy industrial techno

Light fade out. Projection on screen fast grab of industrial nihilistic video.

আলো নিভে যাবে – পেছনের পরদায়ে একটা প্রজেকশান – জুধ্য, শহরের ধংশ, প্লেন থেকে বম পরছে – সউন্দট্রাক – বেতার মাধ্যমে ঘোষণা – বিভিন্ন খবর দর্শক কে বর্তমান থেকে ২০৫৬ শালে নিয়ে যাবে।

Scene 2

tumblr_static_tumblr_static__640

Muted background soundscape – domestic situation. Use a very subtle loop at low level.

Light Fades In. Full light on stage with even lighting.

Sanyal household – it is morning. Mr Sanyal reading a paper, son Prem listening to music while checking his mail on a phone and Mrs Sanyal is sipping a cup of coffee while looking at some work papers. Sonya the household hubot is preparing breakfast.

Mr Sanyal: না। একটা ভাল খবর নেই। জুধ্য মহামারি ভুমিকম্প – চারিদিকে অরাজগতা – দেশটা একেবারে উচ্ছনে গেল।

মায়া: এ আবার নতুন  কি ? সকাল সকাল একগাদা বাজে খবর পরে মেজাজ খারাপ করবার কোন যুক্তি নেই। I prefer to get my news from Facebook.

প্রেমঃ তার চেয়ে আমার মত দুনিয়া ডট কম শন অনেক better. (নিজের মনে গুনগুন করে গান গাইতে গাইতে)Go Robo Go Robo Go……. Robo DJ Bebop এর তুলনা নেই। Go-robo Go-robo Go…..

Mr Sanyal: দেশটা উচ্ছন্নে যাবে না কেন – একবার তার কালকের নাগরিক কে দেখো। স্বপ্নের দুনিয়াতে হারিয়ে আছে। গোবর গোবর – যত সব ফালতু গান।

Prem: কি বললে ফালতু গান – সারা পৃথিবীতে এক নম্বর শিল্পী –  Robo DJ Bebop.

Mr Sanyal: নিকুচি করেছে – বেঢপ – কলকাকাতা শহরে কি হচ্ছে তার একটু খবর রাখবে না?

Prem: আমার তারা আছে – কলেজে সকালের ক্লাস – কি হয়েছে তারা তারি বল।

Mr Sanyal: কাল বিকেল ৬টা নাগাদ…

Prem: এক মিনিট দারাও – সোনিয়া আমার breakfast ready তো?

Sonia: হ্যাঁ – তুমি এখন খাবে?

Prem: Yes please – চটপট। Sorry তুমি কি যেন বলছিলে?

Mr Sanyal: কাল বীকেল ৬ টা নাগাদ – কালিঘাট মেট্রো স্টেশনে পুলিশ এক সন্ত্রাসবাদি হুবটকে গ্রেপ্তার করে। মেট্রো ট্রেনের কামরাতে এই হুবটের সন্দেহজনক আচরনে রেল কর্মীরা পুলিশকে সতরকিত করে। পুলিশের জেরার উত্তরে হুবট – পুলিশ এবং অন্য জাত্রিদের আক্রমন করে। নিজেদের আত্মরক্ষা এবং সাধারণ জাত্রিদের নিরাপদ রাখবার জন্য – এই সন্ত্রাসবাদি হুবটকে পুলিস decommission করে। হুবট্টির নাম অশোক – Intell Robotics কোম্পানির তইরি Model XT3 এই যান্ত্রিক মানুষ কাজ করত নেতাজী সুভাস বিমান বন্দরে। কোম্পানির মুখপাত্র সাংবাদিকদের জানান যে এই জাতের হুবটের এর আগে কোনও সমস্যা হয় নি। অশোক হুবট দক্ষিন কলিকাতায় অবস্থিত Young Hubots Working Hostel এ থাকতেন। কলকাতা সহরে এটি তৃতীয়বার এই জাতীয় ঘটনার দরুন সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার বিঘ্ন হয়েছে। “আমি ভেবেছিলাম হুবট টা আমাকে আক্রমণ করবে – আজকাল এদের উপদ্রব খুব বেরে গেছে, আমি আর রাস্তা ঘাটে নিরাপদ বধ করে না – সরকারের পখ্য থেকে কিছু করা উচিত” বলেন সহযাত্রী সল্টলেক IT sectorএর কর্মী সুমিতা অধিকার। ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি… Intell Robotics – মায়া তমাদের কোম্পানির তইরি মাল। এ বিষয় তোমার কোনও মতামত?

Mrs Sanyal: আমাদের কোম্পানির তইরি হুবটে  গণ্ডগোল হলে আমি নিশ্চয়ই জানতে পারতাম – দরকার পরলে defective lot recall করতে হবে। আমি আজকেই সুব্রতকে জিগ্যেস করব। আমার একটা ৯টার সময় management meeting আছে – ও থাকবে।

Mr Sanyal: Subrata, you mean Subrata Chatterjee your CEO. I dont think he will tell – মার্কেটিঙের ছেলে – এর মধ্যে তমাদের কোম্পানির দোষ থাকলে তো আরোই বলবে না।

Mrs Sanyal: As public relations officer – কইফিয়েত শেষ অব্দই আমাকেই দিতে হবে – আমি এখনি telephone করছি।

She picks up mobile phone and starts having a silent and animated conversation with person on other end.

Mrs Sanyal: Hello Subrata – yes Maya speaking. আজকের খবর দেখেছো? কি? তুমি আগেই জানতে। আমাকে বল নি কেন? After all I will have to face the music – you should have informed me before. একটা virus issue থাকতে পারে? সব meeting এর সময় আলোচনা হবে। আচ্ছা সেই ভাল। ছাড়ছি bye.

Prem: আমার মতে এটা একটা virus infection  –  তমরা Robo virus Ganesh এর নাম শনও নি?

Music accent and low volume techno industrial in background during Prem and Mr Sanyal conversation

Mr Sanyal: গণেশ ভাইরাস – দারা দারা – গত সপ্তাহে খবরে এ নিয়ে একটা লেখা বেরিয়েছিল মনে পরছে। হুবট দের এই virus আক্রান্ত করছে, আর একবার infected হলে হুবট পাগল হয় যায়। তাই না?

Prem: Exactly. এই virus infected হলে হুবট গুলো তাদের প্রাথমিক logic এর বিপরীতে কাজ করছে।

Mr Sanyal: অত কঠিন কথা বলিস না বাপু । তুই না হয় artificial intelligence নিয়ে পরাশুনা করেছিস সবাই তো নয়। একটু সোজা করে বল। আমি মুখ্য মানুষ।

Prem: Ok. যত পারছি সোজা করে বলছি। রবোটিক্স এর তিন ভিত্তিগত আইন আছেঃ

1. A hubot may not injure a human being or, through inaction, allow a human being to come to harm.
2. A hubot must obey the orders given to it by human beings, except where such orders would conflict with the First Law.
3. A hubot must protect its own existence as long as such protection does not conflict with the First or Second Law

অর্থাৎ হুবট কখন জেনেশুনে মানুষের ক্ষতি করতে পারে না – এই একটা মুল খুঁটি ধরে রবোটিক্সের সমস্ত কাজ হয়েছে গত ৫০ বছরের উপর।

Mr Sanyal: তা বুঝলাম – problem কোথায়?

Prem: Problem এই, যে virus infected হোলে ওদের চিপে প্রথম দুটো law একেবারেই মুছে যাচ্ছে আর তৃতীয় law  বিক্রিত হয়ে দাঁড়াচ্ছে – A hubot must protect its own existence.

Mr Sanyal: বল কি – এ তো সাংঘাতিক ব্যাপার – তাহলে তো রোবট যা ইচ্ছে তাই করে বেড়াবে।

Prem: Exactly – সেটাই হচ্ছে – গত কাল কালীঘাটে মেট্রো রেলে হুবট আক্রমণের ব্যাপারটা এ ছাড়া আর কিছু নয়। Fade Music

Sonia places breakfast in front of Prem.

Sonia: আপনার ব্রেকফাস্ট।

Prem: Thank you – Sonia.

Sonia: You are welcome – কফি দিচ্ছি, আপনি টোস্ট আর scrambled eggs টা খেয়ে নিন।

Prem: কফি লাগবে না – আজ তাঁরা আছে। (He starts to eat)

Mrs Sanyal: কিছুতেই পরিষ্কার করে বলবে না – he is such a slippery character.

Mr Sanyal: I told you so – এমনি এমনি কি আর ceo হয়েছে। শুনেছি লোকটা টাকার কুমির  – ওকে তুমি সামলে চলো।

Mrs Sanyal: I am perfectly capable of handling my relationships. তোমার সাহায্য লাগ্লে তোমাকে বলব।

প্রেম কি একটা গণেশ virus এর কথা বলছিল – ওরকম কিছু হয়ছে নাকি?

Mrs Sanyal: হতে পারে – সুব্রত একটা viral infection এর কথা একবার বলে চেপে গেল। আমদের কোম্পানির security division এর প্রধান কাজ হল anti-virus software develop করা।  হুবট brain chip সারাক্ষণ updated রাখতে  হয়। তবে একটা আশঙ্কা থেকেই যায় – কোনও system 100% foolproof নয়, সেকথা তো মানো।

Mr Sanyal: বল কি – সবার ঘরে ঘরে কম পক্ষ্যে একটা করে হুবট কাজ করছে। কারখানায়ে, অফিসে – যেখানেই repeatitive কাজের প্রয়োজন সেখানেই হুবট। এ technology 100% foolproof না হলে তো ঘোর সঙ্কট। আমি ধরেই নিচ্ছি যে আমাদের বাড়ির হুবট দুটো ঠিক ঠাক আছে – মানে আমি বলছি সোনিয়া আর অর্জুনের কথা।

Mrs Sanyal: আমি তো কিছু অন্যরকম লক্ষ্য করি নি। কেন তুমি কিছু দেখেছ নাকি ?

Mr Sanyal: না – সেরকম কিছু দেখি নি। তবু এসব virus শুনেছি ভীষণ দাবানলের মত ছড়িয়ে পরতে পারে।

Prem: পারেই তো – তখন সেটাকে বলবে epidemic – এখনো হয় নি, তবে হতে কতক্ষণ। তোমার এত চিন্তা যখন তাহলে একবার টেস্ট করিয়ে নাও না কেন – sky tech lab থেকে  virus test kit বাজারে পাওয়া যাচ্ছে।

Mr Sanyal: সারা সময় ওদের সাথে ওঠা বসা, রাতের বেলাতে ওরা ঘরের মধ্যেই থাকে। চিন্তার কারণ বটে।

Mrs Sanyal: প্রিয়া সারা সকাল সোনিয়ার সাথে একা থাকে, যদি কিছু একটা হয় যায় আমি নিজেকে ক্ষমা করতে পারব না।

Mr Sanyal: আস্তে বল – ও ঘরেই আছে, শুনতে পাবে।

Mrs Sanyal: তা পাক – ওরা কি কিছু অনুভব করতে পারে নাকি। ওদের মাথার ভেতর silicon chip  আর বুকের ভিতর রয়েছে motherboard. তা ছাড়া অর্জুন কে নিয়েও চিন্তা আছে – ও তোমাকে গারি চালিয়ে নিয়ে যায়, ওর chip যদি সংক্রামিত হয় তাহলেও চিন্তার ব্যাপার।

Mr Sanyal: আরে না না – অর্জুন ভীষণ সাবধানী ডরাইবার – আর সোনিয়া আমাদের সাথে কতদিন আছে সেটা ভুলে যেও না – প্রায় ৫ বছর। সোনিয়া তুমি আমাদের সাথে কত দিন আছ?

Sonia: ৪ বছর – ৯ মাস – ১৭ দিন, মিঃ সান্যাল।

Mrs Sanyal: তাই জন্য তো আরও বেশি চিন্তা। পুরনো হুবটের এসব virus হবার সম্ভবনা অনেক বেশী। অর্জুন কে আমরা কিনেছি গত বছর ওর anti-virus সব upto date আছে, কিন্তু সোনিয়া ………

প্রিয়ার প্রবেশ – ও মার শেষ কথা গুলোযাচ্ছে।

Priya: কি হয়েছে সোনিয়াদির?

Mrs Sanyal: কিছু না – আমরা এমনি কথা বলছিলাম। তুমি স্কুলের জন্য তয়িরি হয় নিয়েছ।

Priya: হ্যাঁ নিজে নিজে – সনিয়াদি কে ডাকতে হয় নি একবারও। জুতর ফিতে পর্যন্ত নিজে বেধেছি।

Mrs Sanyal: very good – এবার breakfast খেয়ে নাও তারপর সোনিয়া তোমাকে স্কুলে নিয়ে যাবে। সোনিয়া, ও আজকে কি খাবে?

Sonia: Toast, cereals আর scrambled eggs তয়িরি আছে ম্যাডাম। আমি এখনি দিচ্ছি।

Prem: আমি চললাম, কলেজের দেরি হয় যাচ্ছে। তোমাদের কি antivirus kit টা লাগবে? ফেরার পথে বিকেল বেলা কিনে আনতে পারি।

Mrs Sanyal: হ্যাঁ – তুমি দুটো কিট কিনে আনও। সোনিয়া আর অর্জুন দুজনকেই টেস্ট করব।

Prem: পয়সা দাও।

Mr Sanyal: কত দাম এই কিট গুল?

Prem: এক একটা আরাই করে বিক্রি হচ্ছিল South City তে।

Mr Sanyal: আরাই আরাই মানে পাচ হাজার।

Prem: না, আরাই আরাই মানে পাচ লাখ।

Mr Sanyal: পাচ লাখ – ওরে সাবাস – এ তো গলা কাটা।

Mrs Sanyal: আমাদের হুবট virus আক্রান্ত হলে the danger is very real – পাচ লাখ তো অল্পের উপর দিয়ে যাচ্ছে।

Mr Sanyal:আচ্ছা দারাও – আমি এনে দিচ্ছি। আমরা একসাথে যাব, সোনিয়া তুমি একবার অর্জুনকে ডাকো তো। ওকে গারিটা বার করতে বল।

Sonia: Ok Sir – আমি এখুনি ডাকছি।

Mr Sanyal exits room and Sonia rings a bell that summons Arjun the second hubot in the Sanyal household.

Arjun: আমাকে ডেকেছিলেন madam?

Mrs Sanyal: হ্যাঁ – গারিটা বের কর, Mr Sanyal অফিস যাবেন পাচ মিনিটের মধ্যে।

Arjun: Yes madam – গারি রেডি আছে, আমি এখুনি বার করছি।

Priya: Hello অরজুন্দা – তুমি আজ কেমন আছ?

Arjun: আমি ভাল আছি প্রিয়া।

Priya: আমাকে তুমি hello বললে না কেন – আমি তোমার উপর খুব রাগ করব কিন্তু।

Arjun: তুমি চাও আমি তোমাকে hello বলি?

Priya: হ্যাঁ রোজ সকালে দেখা হলে hello বলতে হয় – আর নয়ত good morning – সোনিয়াদি আমাকে শিখিয়েছে। সনিয়াদি অনেক কিছু জানে – তুমি কিচ্ছু জান না – সুধু গারি চালাতে পারো।

Arjun: সোনিয় তো ঘরে কাজ করবার হুবট ওর chip আমার থেকে আলাদা।

Priya: আর তুমি মটে হাসও না – সব সময় গমরা মুখো।

Arjun: আমি driver হুবট আমাদের হাসবার function নেই।

Priya: তুমি হাসতে পারো না – ঈশ কি কষ্ট তোমার – আর দুঃখ হলে কাঁদতে পার আমাদের মত?

Arjun: আমি হুবট – আমি কাঁদতে পারি না।

Mrs Sanyal: ব্যাস ব্যাস – ঢের হয়ছে। প্রিয়া তুমি দেরি কর না আমাদের সবাই কে বেরতে হবে।

Enter Mr Sanyal

Mr Sanyal: এই যে অর্জুন। তুমি গারি বার কর আমি আসছি।

Exit Arjun

Mr Sanyal আমার কার্ড থেকে তোমার কার্ডে money transfer হয় গেছে। You might as well come with me. অর্জুন তোমাকে কলেজে ড্রপ করে দেবে।

Priya: বাই daddy – বাই প্রেম।

Exit Prem and Mr Sanyal.

Priya: মা তমারা কি বলছিলে – সনিয়াদি আর অরজুন্দার কি হয়েছে?

Mrs Sanyal: কিছু হয় নি প্রিয়া। তুমি খেয়ে নাও।

Priya: তুমি না বললে, সনিয়াদি বলবে – কি হয়েছে – তোমার কি জর হয়েছে?

Sonia: আমার জর হয়নি প্রিয়া, আমি ঠিক আছি। তোমার খাওয়া হলে আমরা স্কুলে যাব। তুমি আর একটু juice নেবে।

Priya: হ্যা নেব।

Mrs Sanyal: আমি ওকে দিচ্ছি, তুমি একবার ওঃ ঘরে জাও, আমি তোমাকে ডেকে নেব ।

Sonia: আচ্ছা ম্যাডাম।

Exit  Sonya

Music score – low volume – something dark

Mrs Sanyal: প্রিয়া তোমার সাথে আমার কয়েকটা কথা বল্বার আছে।

Priya: কি কথা মা?

Mrs Sanyal: দরকারি কথা। প্রিয়া তোমার বয়স এখন ১০। ভাল মন্দ বঝবার বয়স তোমার হয়েছ। আমি যে কথা তোমাকে বলব খুব মন দিয়ে শোন। এসব জিনিস আগে তোমার সাথে আলচনা করি নি, কখনও আলচনা করবার দরকার পরে নি। আমি জা বলব সেটা শুধু তোমার জপ্ন্য, আর কারকে তুমি বলবে না – কেমন?

Priya: আমাদের secret?

Mrs Sanyal: হ্যা। আমাদের secret. Promise koro কাউকে বলবে না।

Priya: সনিয়াদিকেও না?

Mrs Sanyal: একেবারেই না।

Priya: আচ্ছা প্রমিস করছি।

Mrs Sanyal: সোনিয়া আর অর্জুন – ওরা হুবট, ওরা আমাদের মত নয়। ওদের তুমি কিন্তু কখন মানুষের সাথে ভুল কর না। আমরা মানুষ, আমরা ওদের বানিয়েছি। আমরা চাইলে ওদের চালু করতে পারি আবার বন্ধ করতেও পারি। তোমার মোবাইল, ট্যাবলেট, কম্পুটার যেমন যন্ত্র, অরাও কিন্তু যান্ত্রিক। ওদেরকে খালি আমাদের মতন দেখতে করা হয়ছে। আমাদের মধ্যে প্রান আছে, তাই আমরা হাসতে পারি – কাঁদতে পারি। ওদের প্রান নেই তাই ওরা হাসতেও পারে না, কাঁদতেও পারে না।

Priya: সোনিয়া দি আমার সাথে হেসে কথা বলে।

Mrs Sanyal: ওটা আসল হাসি নয় – ওটা নকল। যখন কোনও যন্ত্র পুরনো হয়ে যায় তখন আমরা সেটাকে ফেলে দি। সোনিয়া আর অর্জুন যখন পুরনো হয় যাবে ওদেরকে আমরা ফেলে দেব। তুমি আবার তখন দুঃখ পেয় না।

Priya: সোনিয়া দি কে ফেলে দেব ?

Mrs Sanyal: না ফেলবই বলছি না – তবে বলা তো যায় না। তোমাকে জানিয়ে রাখাটা ভাল – নইলে তুমি ব্যাথা পাবে। তুমি আবার এসব কথা ওদেরকে বোলও না।

Priya: না – বলব না। Fade music

Mrs Sanyal: Ok – আমাকে বেরতে হবে, তুমি সোনিয়ার সাথে স্কুলে যাও। বিকেলে তোমার জন্য rugrats এর নতুন videoটা নিয়ে আসব আর সাথে yummy chocolate cake কেমন।

Priya: yummy yum

Mrs Sanyal: সোনিয়া, এদিকে এসো।

Enter Sonya

Mrs Sanyal: শনও আমি অফিসে যাচ্ছি – তুমি প্রিয়া কে স্কুলে নামিয়ে এসে রাতের খাবার টা করে রেখো। কি করবে জান তো?

Sonia: Yes madam – dinner as per weekly menu. আপনি কি মেনু বদলাতে চান?

Mrs Sanyal: না – যা আছে তাই থাক। আমি চলি, বাই প্রিয়া।

Priya: Bye mum.

Exit Mrs Sanyal.

Priya: সনিয়া দি – আজকে আমার স্কুলে জেতে ইচ্ছে করছে না। Do I have to go?

Sonia: কেন কি হল তোমার?

Priya: আমার মন খারাপ – আমি তোমার সঙ্গে বারিতে থাকতে পারি না।

Sonia: স্কুল কামালে madam রাগ করবেন – আর তোমার আজকে ইংরিজির ক্লাস টেস্ট আছে।

Priya: সোনিয়া দি – আমি পুরনো হয় গেলে কি তুমি আমাকে ফেলে দেবে?

Sonia: আমি তোমার কথা বুজতে পারছি না প্রিয়া।

Priya: তুমি কি করে বুঝবে – তুমি তো হুবট, তুমি তো মানুষ নো, তোমার কোনও heart নেই।

Sonia: এসব কথা কে তোমাকে বলেছে?

Priya: না – তোমাকে বলব না, আমি promise করেছি।

Sonia: ও – আচ্ছা।

Priya: সোনিয়া দি – সত্যি বলছি আমার আজ একদম স্কুলে জেতে মন চাইছে না। আমি তোমার সাথে থাকি না। আমি একটু ও দুষ্টুমি করব না। Please…

Sonia: শরীর খারাপ না হলে তো স্কুলে জেতেই হবে প্রিয়া। আচ্ছা এক কাজ করা যাক। তুমি না হয় একটু দেরি করে স্কুলে যাও – বেশী দেরি নয় – আধ ঘণ্টা। কিন্তু এই আধ ঘণ্টা আমারা কি করবো?

Priya: আমি জানি – আমরা খেলব – কি খেলবে তুমি? নাকি আমরা ছবি আঁকব? চল আমরা ছবি আঁকি।

She gets a drawing pad and some crayons. They start to draw sitting side by side. Light fades very slowly. There conversation continues in semi darkness.

Music score – low volume – Aaj jyotsna raate sobai geche bone…..

Priya: আমি একটা ফুলের ছবি আঁকছি – তুমি কি আঁকছও?

Sonia: তুমি ফুল আঁকও – আমি উপরে ডাল আর পাখি একে দেব।

Priya: হ্যাঁ মজা হবে। খুব মজা হবে।

Priya: সোনিয়া দি – মানুষ পুরনো হলে কি হয় তাদের?

Sonia: তখন তারা বুড়ো হয় যায়।

Priya: তুমি একটা বুড়ো লোক আঁকতে পারবে?

Sonia: হ্যাঁ – এই তো গাছের তলায় দার করিয়ে দিলাম।

Priya: আরও পুরনো হলে কি হয়?

Sonia: অনেক বুড়ো হলে মানুষ মোরে যায়।

Priya: কোথায় যায়?

Sonia: আমি জানি না।

Priya: আর হুবট – তাদের কি হয়?

Sonia: আমি জানি না।

Light Fades Out

Music score increases in volume and then fades out leading into next scene.

Scene 3

WRECKAGE FROM THE COLLAPSED TWIN TOWERS ON MANHATTAN STREETS

Light Fades In. Full light on stage with even lighting. Floor lamp is on.

Music score – household ambience with radio in background. Announcement is pre recorded.

Sanyal household (evening). Sonya is working, Mr Sanyal is on a laptop checking email, the radio is playing in the background. It cuts to the news.

নমস্কার – একটা জরুরি ঘোষণা। কলকাতা শহরে হুবট সন্ত্রাসবাদীরা হামলা করেছে বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংস্থার কর্মস্থলে। এর ফলে কলকাতার রাসতায় জানবাহন চলাচল পুরপুরি বন্ধ হয় গেছে। আমাদের কাছে খবর এসেছে যে জঙ্গি হুবটের দল বিমান বন্দর এবং writers building দখল করে নিয়েছে। পুলিশের তরফ থেকে অনুরধ যদি আপনারা জঙ্গি হুবটের দল রাস্তায় ঘুরে বেরাতে দেখেন তাহলে যেন তাদের কাছে না জান এবং সরাসরি পুলিস কন্ট্রল রুমে ফণ করে্ন। পুলিসের নাম্বার ০৪১৩৬৬৬৬। এই হুবটেরা সশস্ত্র এবং বিপজ্জনক। আজ দুপুর বারটার সময় এক দল হুবট writers building এর নিরাপত্তা রক্ষীদের সশস্ত্র ভাবে আক্রমণ করে। বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ৪ জনের ম্রিত্যু হয় পুলিস থেকে জানান হয়ছে। পুলিস এবং সামরিক বাহিনী এখন writers building এর চারি পাশ ঘিরে ফেলেছে। BBD Bag অঞ্চলে পুলিশের অবরোধ দেওয়া হয়েছে। দম দম বিমান বন্দরে আজ সকাল ১১টার পর থেকে বিমান চলাচল বন্ধ আছে। বিমান বন্দরের ভেতরে জঙ্গি হুবটের দল জাত্রিদের আটক করেছ – এটাই আমাদের অনুমান। সামরিক বাহিনী দমদম বিমান বন্দরের সব কটি প্রবেশের রাস্তা বন্ধ করে পরিস্থিতির উপর সতর্ক নজর রাখছেন। এ ছারাও শহরের বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আমাদের কাছে জঙ্গি আক্রমণের অসমর্থিত খবর এসে পউচাচ্ছে। জনসাধারণের কাছে অনুরধ যেন আপনারা নিজের বাড়ির মধ্যে থাকেন। আপনারা আতঙ্কিত হবেন না। এই পরিস্থির উপর আমারা প্রতি ঘনটা report করব। বাংলা ২৪ news এর তরফ থেকে আমি কাকলি মিত্র।

Mr Sanyal agitated fearfully looks at Sonya – he is worried about Priya and also about Mrs Sanyal and Prem. He phones his wife first.

হ্যালো – মায়া, আমি রথিন বলছি। হ্যাঁ আমি বাড়ি থেকে বলছি – একটু আগে ফিরলাম। তুমি কোথায় আছ? তুমিও বাড়ি ফিরে আসছ – আচ্ছা ভাল কথা। সঙ্গে সুব্রত আসছে – পৌঁছে দিচ্ছে তোমাকে। ঠিক আছে তোমরা কত দূরে? পাচ মিনিটে পৌঁছে যাবে – না প্রেম এখনো ফেরে নি আমি ওকে ফণ করছি। প্রিয়া কি করছে? জানি না আমি এই সবে ফিরলাম – তুমি চিন্তা কর না। হ্যাঁ হ্যাঁ আমি এখুনি দেখছি – তুমি সাবধানে এস – রাস্তায় বিপদ। আমি রাখছি। bye.

Mr Sanyal: প্রিয়া – প্রিয়া … কোথায় তুমি?

Priya: কি হয়েছে বাবা – আমি এ ঘরে আছি – homework করছি। (She replies from other room)

Mr Sanyal: sorry – ও হ্যাঁ প্রেম কে ফণ করতে হবে, ওর এতক্ষণে ফিরে আসা উচিত ছিল।

He rings Prem.

Mr Sanyal: প্রেম তুমি কোথায়? রাস্তা বন্ধ – তুমি আটকে গেছ। দারাও ভাবতে দাও – আমি বারিতে প্রিয়াকে একা ফেলে জেতে পারব না। আমি অর্জুন কে পাঠাচ্ছি, তোমাকে পিক আপ করবে। ওর চিপ নাম্বার তোমার ফণে তোলা আছে তো। ভাল কথা, তুমি কলেজ ছেরে বেরিয়ো না। অর্জুনকে আমি এখুনি পাঠাচ্ছি। হ্যাঁ এখন ছাড়ছি।

Mr Sanyal: সোনিয়া – অর্জুন কে ডাক – জরুরি দরকার।

Soniya looks up but makes no response. Music accent

Mr Sanyal: সোনিয়া – কি হল অর্জুন কে ডাকো!…… (still no response – they stare at each other, Mr Sanyal strides across room and hits the calling bell) অর্জুন – অর্জুন।

Enter Arjun

Arjun: আমাকে ডাকছিলেন।

Mr Sanyal: হ্যাঁ – তুমি প্রেমের কলেজটা চেন তো?

Arjun: হ্যাঁ – ওর contact details সব আমার upload করা আছে?

Mr Sanyal: তাহলে তুমি ওকে ওর কলেজ থেক তুলে আনো – ও তোমার জন্য অপেক্ষা করছে।

Arjun: আমি এখুনি যাচ্ছি স্যার।

Mr Sanyal: অর্জুন?

Arjun: আর কিছু বলবেন স্যার?

Mr Sanyal: তোমাকে আমি পুরপুরি বিশ্বাস করছি অর্জুন – আমকে disapoint করো না।

Arjun: 100% customer satisfaction guarantee – আমাকে কেনার সাথে আপনি factory warranty card পেয়েছেন। আমার ৫ বছরের money back warranty আছে স্যার।

Mr Sanyal: ঠিক আছে তুমি এখন যাও। (The doorbell rings)  মায়া হবে – দরজা খোলা আছে, চলে এস। (Mrs Sanyal and colleague Subrata enters)

Mr Sanyal: জাক তমরা ভালোয় ভালোয় ফিরে আসতে পেরেছ – thank God.

Mrs Sanyal: রাস্তা ঘাটের জা অবস্থা – সুব্রত তাই insist করল আমাকে বাড়ি পউছে দেবে।

Subroto: I am glad i did – situation আর খারাপের দিকে যাচ্ছে – শুনলাম নিউ মারকেটে নাকি কেউ আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। আসবার পথে আমাদের হাজ্রা মোর থেকে detour নিতে হল। ভবানিপুরের কাছটায় হুবটের দল তছনছ করছে।

Mrs Sanyal:এ সব কি হচ্ছে – মনে হচ্ছে আমি একটা দুঃস্বপ্নের মধ্যে আটকে গেছি। ওঃ আমার মাথা দপ দপ করছে। প্রেম ফিরেছে?

Mr Sanyal: না ও কলেজে আটকে গেছে – আমি অর্জুনকে পাঠিয়ে দিয়েছি – ওকে নিয়ে আসতে।

Mrs Sanyal: অর্জুনকে পাঠিয়েছে! তোমার কোন কান্ডগ্যান নেই – চার দিকে হুবট গুলো সব খেপে উঠেছে আর তুমি ছেলে আনতে একটা হুবটকে – i cant believe it.

Mr Sanyal: What do you expect – বারিতে প্রিয়াকে ফেলে কি করে যাব। অর্জুন কে বিশ্বাস করা ছাড়া উপায় কি?

Mrs Sanyal: আমাকে ফোনটা দাও – আমি প্রেমের সাথে কথা বলব।

Subroto: রথিন দা, আপনি নিজে না গিয়ে ভালই করেছেন, আপনার বয়স হয়ছে  – বাইরে পরিস্থিতি নিরাপদ নয়।

Mr Sanyal: সুব্রত তোমাদের কম্পানি Intell Robotics hubot technology ইর পুরভাগে। এরকম হল কি করে। রাতারাতি যেন এই রোগ সঙ্ক্রমক হয় দারিয়েছে।

Subroto: হ্যা আপনি ঠিক বলেছেন – গত ২৪ ঘন্টায় Ganesh virus এ দেশে ছরিয়ে পরেছে। ভাব্বেন না যে এটা শুধু কলকাতা শহরে হচ্ছে – দিল্লি, মুম্বাই, চেন্নাই থেকে আমাদের কাছে উন্মাদ জঙ্গি হুবটের বিবরন আসছে। সব খবর media প্রকাশ করছে না – জনসাধারনের নিরাপত্তার খাতিরে।

Mr Sanyal: এরকম কি করে হল তোমার মনে হয়?

Subroto: সঠিক বলা অসম্ভব – এই মুহূর্তে সব কিছু ধোয়াটে। অনেক রকঅম কানাঘুষো বাজারে ছরাচ্ছে – কেউ বলছে হুবট চিপের ভিতরে যে কোড তাতেই গলদ  or you may say there was a flaw in the original programming. আবার কেউ কোন আন্তর্জাতিক সরজন্ত্রের কথা বলছে – maybe it is a powerplay by China or Russia – who knows? All we can say for sure is that this virus has attained critical mass.

Mr Sanyal: তাহলে এখন উপায়?

Subroto: আপাতত virus detection kit মটামটি কারজকরি। আর যদি আমরা বুঝতে পারি যে হুবট আক্রান্ত তাহলে সেটাকে isolate করে decommission করবার ক্ষমতা আমাদের অবশ্যই আছে। In fact thats one more reason আমি আজ এলাম। মায়ার কাছে শুনলাম আপনারা বারির দুটো হুবট কে আজ টেস্ট করবেন – আমি  laboratary থেকে দুটো কিট নিয়ে এসেছি – just in case.

Mrs Sanyal: ভাল করেছ এনে – এই মাত্র প্রেম কে ফনে পেলাম – অর্জুন পউছে গেছে, আমি ওকে সোজা বাড়ি ফিরে আসতে বলেছি। o virus kit কেনবার সুযোগ পায় নি। প্রেমের ফিরতে দেরি হওয়া উচিত নয়, ওর কলেজ কাছেই। আমি চা খাব – সুব্রত তোমার চা না কফি?

Subroto: কফি – black no sugar.

Mrs Sanyal: সনিয়া – ২ কাপ চা আমাদের জন্য আর একটা ব্ল্যাক কফি চিনি ছাড়া। (Sonia does not respond – but stares at Mrs Sanyal defiantly)

Music score – low level tense… gradually increasing in volume until slap. Then fading.

Mrs Sanyal: সোনিয়া তুমি কি আমার কথা শুনতে পাও নি – i have asked for 2 cups of tea and 1 black coffee.

Sonia: Please would be nice – Mrs Sanyal

Mrs Sanyal: আমি কি ঠিক শুনলাম – তুমি আমার সাথে মুখে মুখে তর্ক করছ।

Mr Sanyal: সোনিয়া আমার সাথেও – কিরকম আদ্ভুত ব্যাবহার করল – ওকে কখন এরকম দেখি নি।

Mrs Sanyal: একটা সামান্য যন্ত্র – আমার পয়সা দিয়ে কেনা – আমার বারিতে আমাকে অপমান করবে – i cant tolerate this.

Mr Sanyal: মায়া – সামান্য ব্যাপার নিয়ে এত মাথা গরম কর না।

Mrs Sanyal: আমি মাথা গরম – you are joking. তুমি দুর্বল। এর একটা বিহিত দরকার। সোনিয়া তুমি আমার আদেশ মানবে কি না?

Sonia: আগে আপনি please বলুন।

Mrs Sanyal: ছট মুখে বড় কথা – এই নাও তোমার please (she slaps the hubot across the face) – এবার আনবে আমার চা। Music accent

Sonia falls to the floor from the force of the blow. Mr Sanyal helps her up.

Mr Sanyal: মায়া – তুমি কি পাগল হলে। এ ভাবে সোনিয়ার গায়ে হাত তোলা – ছি ছি আমি ভাবতে পারছি না। সোনিয়া তোমাকে চা করতে হবে না, আমি বানিয়ে দিচ্ছি।

Subroto: ভুল করছেন রথিন দা, ভীষণ ভুল করছেন আপনি।

Mr Sanyal: আমি ভুল করছি? কি বলতে চাও তুমি?

Subroto: আপনাদের বাড়ির হুবটের ব্যাবহার দেখে আমার খুব সন্দেহ জনক লাগছে। আপনি তার উপর এই হুবটের স্পর্ধাকে আস্কারা দিচ্ছেন – ওর পক্ষে কথা বলে। সোনিয়ার এই আচরণের মুলে যদি virus infection কারণ হয় তাহলে আপনার support পেয়ে virus logic hubot brain chip এ আর গারো ভাবে গেঁথে যাবে।

Mr Sanyal: আমাদের কি করা উচিত?

Music score – low level tense… gradually increasing in volume until slap. Then fading.

Subroto: ভুলে যাবেন না – সোনিয়া পুরপুরি যান্ত্রিক – ওর কোনও বোধ নেই। ব্যাথা, ভালবাসা, দুঃখ ওরা বোঝে না। মায়া তুমি ওকে চর মারলে – তাতে ওর কোনও ব্যাথা লাগে নি – পরে গেছে কারণ balance module অল্প malfunction করেছে। সেটা নিয়ে R&Dর সাথে কথা বলতে হবে। আপনি যদি ওকে আর একটা চোর মারেন তাতে ওর কোনও প্রতিক্রিয়া হবে না – she is just a hubot. বিশ্বাস হচ্ছে না – Go on give it a try. আপনি সঙ্কোচ বোধ করছেন – ঠিক আছে – with your permission – আমি demonstrate করছি।

Subroto walks up to Soniya and very deliberately slaps her. Soniya flinches but shows no other reaction. Music accent

Subroto: আমার কথা বিশ্বাস করছিলেন না – এবার নিজের চোখে দেখে বিশ্বাস হল তো। ওরা পুরপুরি যান্ত্রিক – ওদের সাথে আপনি যা খুশি করতে পারেন।

The doorbell rings.

Mrs Sanyal: এটা প্রেম হবে নিশ্চয়ই।

Arjun and Prem enters.

Prem: বাইরে সাংঘাতিক অবস্থা। রাস্তায় পুলিশ নেই বললেই চলে। জঙ্গি হুবটের দল ইচ্ছে মত লুঠ পাঠ করছে। অর্জুন না থাকলে কি করতাম জানি না।

Mr Sanyal: বলিস কি – তদের আক্রমন করেছিল নাকি?

Prem: না আক্রমন করে নি – আমাকে ওরা দেখতে পায় নি তাই বাঁচোয়া। আমি পেছনের সিটে মেজের উপর সুয়ে লুকিয়ে ছিলাম। সব দোকান ঝাপ ফেলে দিয়েছে – ওই virus kit আমি কিনতে পারি নি।

Mrs Sanyal: চিন্তা কর না প্রেম – সুব্রত laboratory থেকে নিয়ে এসেছে – তোমার জন্মদিনের পারটি তে এসেছিলেন, আমার অফিসের colleague – তোমার মনে আছে নিশ্চয়ই।

Prem: Of course – মনে আছে। কখন টেস্ট করবে।

Subroto: আমি কিট বার করছি।

Mr Sanyal: এক মিনিট – এই টেস্টে কোন বিপদ নেই তো – মানে আমাদের সনিয়া আর অরজুন আমাদের আক্রমন করতে আসবে না তো।

Subroto: না – সেটর সম্ভবনা খুবি কম। বরং এটা ফেলে রাখলেই বিপদ হতে পারে।

Mrs Sanyal: যদি ভাইরাস ধরা পরে তাহলে কি করতে হবে? Music score – low level tense… gradually increasing in volume until Arjun is checked. Then fading.

Subroto: তাহলে সকলের নিরাপত্তার খাতিরে – আমাদের infected hubot decommission করতে হবে।

Mr Sanyal: কাকে আগে টেস্ট করা হবে – সনিয়া না অর্জুন?

Subroto: প্রথমে আমরা অর্জুন কে টেস্ট করব। আপনি ওকে ডাকুন।

Mr Sanyal: অর্জুন – সামনে এসে দারাও।

Arjun: Yes Sir.

Mr Sanyal: নরবে না  – তোমার ঘারের পিছনের সকেটে একটা device plug in করা হবে। তুমি দারিয়ে থাকও – আমি বলে দেব  শেষ হলে।

Arjun: Yes Sir – I am ready.

(Subroto steps up behind hubot and inserts an USB to back of the neck. He monitors the readings on a handheld device. The rest look on intently for a few seconds) Music fade

Subroto: Hmmm – there is no trace of infection in this chip – অর্জুন ইস ওকে।

Mr Sanyal: জাক নিশ্চিন্তি – ওকে এখন জেতে বলে দি?

Subroto: হ্যা ওকে জেতে বলে দিন।

Mr Sanyal: অর্জুন তুমি এখন জেতে পারো।

Arjun: আমাকে কি আর আজ রাতে আপনার দরকার পরবে?

Mr Sanyal: না – আমার তো আজ আর কোন দরকার নেই – মায়া – তোমার কিছু লাগেবে ওকে দিয়ে?

Mrs Sanyal: No Arjun – you may go now. (Arjun exits) এবার সনিয়ার পালা – ওকে নিয়ে আমার চিন্তা হচ্ছে।

Subroto: Her behaviour is definitely suspicous – we need to be careful.

Mrs Sanyal: না আমি সেকথা বলছি না – ব্যাপার হল যে প্রিয়া – সনিয়ার সাথে খুবি ঘনিস্ট – বলতে পারো  ওর কাছেই মানুশ হয়েছে। যদি সনিয়ার কোন প্রবলেম বেরয়ে তাহলে প্রিয়া সেটা সহজ ভাবে নিতে পারবে না।

Mr Sanyal: প্রিয়া কে কি আমাদের জানান উচিত?

Subroto: কখনই না – complication বারবে। আপনি বরং সনিয়া কে ডাকুন। প্রেম, মায়া তোমরা সতর্ক থাক – জদি বাধা দেয়ে – তাহলে তোমরা আমাকে সাহায্য করবে। রথিন দা আপনি সনিয়াকে ডাকুন।

Music score – low level tense… gradually increasing in volume until Sonya is checked. Then fading.

Mr Sanyal: সনিয়া একটু এদিকে এস তো?

Sonia: কেন – কি চান Mr Sanyal?

Mr Sanyal: না – আমি কিছু চাই না কিন্তু … মানে…

Subroto: তোমার virus protection module একটু update করা দরকার। একবার সামনে এসে দারাও। আমি না বলা পর্যন্ত চুপ করে দারিয়ে থাকও।

(Subroto steps up behind hubot and inserts an USB to back of the neck. He monitors the readings on a handheld device. The rest look on intently for a few seconds) Music fade

Subroto: রথিনদা – মায়া – আপ্নাদের সাথে একটা কথা দরকার। (They have a private discussion in front of stage) জা ভয় পেয়ে ছিলাম তাই। আপনাদের এই হুবট্টি virus infected হয় পরেছে। এখন পুরপুরি বিগ্রে যায় নি – তবে আমাদের এটাকে immediate decommission করা দরকার – নয়ত পরিস্থিতি সঙ্কটজনক হতে পারে।

(While this discussion is going on Priya has entered the room and is taking in the situation.)

Music accent and low volume techno industrial in background gradually increasing and peaking at Sonya’s decommision

Priya: কি হয়েছে? সনিয়া দি কে তোমরা কি করছ?

Mrs Sanyal: কিছু না প্রিয়া – তুমি তোমার ঘরে জাও।

Priya: আমি জাব না আগে বল তোমরা সনিয়া দি কে কি করছ?

Sonia: আমি ঠিক আছি প্রিয়া – আমার brain chip update করতে হবে – তুমি চিন্তা কর না।

Priya: কেন – তুমি কি পুরনো হয় গেছ – কে বলেছে তুমি পুরনো, তুমি মটেই পুরনো নও।

Subroto: মায়া – আমাদের হাতে সময় নেই – we are sitting on a time bomb – তোমার এই হুবট আক্রান্ত – যে কোন মুহূর্তে হিংস্র হয় উঠতে পারে। তুমি প্রিয়াকে সামলাও আমি সনিয়াকে  decommission করব।

Mrs Sanyal: আচ্ছা আমি দেখছি – তুমি জা করবার তা কর। প্রিয়া আজ স্কুলে কি হল  আমাকে বলবে না – এস আমার সাথে।

Priya: না – তোমরা আমার কাছ থেকে কিছু লুকচ্ছ। আমি সনিয়াদি কে ফেলে কথাও যাব না। (she hugs Sonya tightly)

Mrs Sanyal: Priya – dont be silly. Sonyia is a machine – একটা জন্ত্র – আমার সাথে এস। এস বলছি। (Maya tries to pull Priya away from Sonya)

Sonia: প্রিয়া – তুমি মার কথা শোনো – ভয় পেও না – আমার কিছু হয় নি – আমি তমায় ফেলে যাব না। আমি তমায়ে ভাল…………আআআআআআআআআআআআআআ।

(Subrata creeps up behind her and pull out her control chip – Sonya collapses – Mr Sanyal stops her from falling – she is lifeless.)

Priya: আমাকে ছেরে দাও – ছেরে দাও – ওরা সনিয়াকে মেরে ফেলছে।

Mrs Sanyal: ওঃ জন্ত্র প্রিয়া মানুষ নয় – কেবল জন্ত্র – ওর প্রান নেই।

Priya: তুমি মিথ্যে বলছ – আমাকে ছেরে দাও – সনিয়াদি কথা বল – আমি প্রিয়া – আমার সাথে কথা বল।

Subroto: মায়া ওকে নিয়ে জাও – for Gods sake.

Mrs Sanyal: প্রিয়া এস – আমার সাথে এস তুম – তোমাকে ঘুম পারিয়ে দিচ্ছি। এস।

(Exit Maya and a sobbing Priya) Music fade

Mr Sanyal: কাজটা ভাল করলে না – সুব্রত – সনিয়া আমাদের সাথে অনেকদিন আছে।

Subroto: আপনি খামোখা উত্তজিত হচ্ছেন রথিন দা – এটা আমাদের করতব্য। আমারা কোন অন্যায় করি নি।

Prem: সনিয়া হুবট – ওর সরির কোন ব্যাথা অনভব করে না – তাহলে ওঃ চিৎকার করল কেন।

Subroto: প্রেম তুমি emotional হয় পরেছ – আমাদের আর পথ ছিল না। আর যদি আমরা এই পদখেপ না নিতাম তাহলে তার পরিনাম তুমি আজ নিজের চক্ষে দেখেছ – কলকাতার রাস্তায়। সেটা আমারা চাই না।

Prem: আপনি কি করে জানলেন যে সনিয়া – হিংস্র হয় উঠত? এই virus সম্মন্ধে আমারা কতটুকু জানি?

Subroto: তুমি ছেলেমানুষ – আমি রোজ হুবট নিয়ে কাজ করছি – সনিয়া যদি aggresive হয় গিয়ে মায়া কিম্বা প্রিয়াকে আক্রমন করে বসত – তখন কে সামলাত – তুমি?

Prem: এটা আপানার বাড়ি নয় – আমাদের বাড়ি – আমাদের হুবট – আপনি বাবার অনুমতি নিয়েছিলেন ?

Subroto: নিশ্চই নিয়েছি – সবাইকে জানিয়ে আমি হুবটকে decommission করেছি। রথিন দা আপনি ছেলেকে বলুন – আমার ধইজ্যের সীমা ছারিয়ে যাচ্ছে।

Mr Sanyal: প্রেম তুমি…

Prem: থাক আমাকে কিছু বলবার প্রয়োজন নেই – সুব্রত কাকু হয়ত জানেন না – গত ৫ বছর প্রিয়া সনিয়ার কাছেই মানুষ হয়েছে – আর তোমরা প্রিয়ার চোখের সামনে সনিয়াকে এরকম নিশঠুর ভাবে খতম করতে পারলে। বাবা তুমি এই নিশঠুর অন্যায়ের পক্ষে কথা বলে আমার কাছে ছোট হয়ও না। কিছু বল না – সেও ভাল। (Exit Prem)

Subroto: আজকালকার ছেলে – ভীষণ emotional – আমি বুঝি আমরাও এ বয়সে এরকমি ছিলাম বোধহয়।

Mr Sanyal: প্রেম কিন্তু এমনিতে যথেষ্ট responsible – i apologise for his rude behaviour.

Subroto: না-না  তার কোন দরকার নেই। It has been a stressful day for everyone. What shall we do with her?

Music score – low level melancholic will continue till end of scene – rising in volume at scene change and then fading out.

Mr Sanyal: আপাতত এইখানেই থাক – কাল শকালে একটা বন্দবস্ত করা যাবে। আমার এরকম অভিগ্যতা আগে হয় নি – কি করে dispose করব ওকে? Rubbish tip কি হুবট নেবে?

Subroto: হ্যা নেবে – ওদের জন্য অল্প বেশি handling charge দিতে হবে – hazardous material র category te pore. ওর চাবি খুলে নিয়েছি – এটা ছাড়া ওঃ অকেজো। এই রইল – এটা আপানি মায়ার হাতে একবার আমাদের laboratary তে পাঠিয়ে দেবেন – we will run some tests.   কটা বাজে – ওরে বাবা অনেক বেজে গেছে – আমার উঠতে হবে, অনেক দূর জাবার আছে – রাজারহাট ছারিয়ে। মায়াকে বলে দেবেন, ওঃ বোধহয় প্রিয়াকে ঘুম পারাচ্ছে।

Mr Sanyal: দারাও দারাও – যাবে কি – রাস্তা ঘাটের অবস্থা কিছুই জানি না – এইভাবে গেলেই হল নাকি; আমি মায়াকে ডাকছি – মায়া, মায়া…………

(Enter Maya)

Mrs Sanyal: প্রিয়া কাদতে কাদতে – এখুনি ঘুমিয়েছে – একটু আস্তে কথা বল। প্রেম কই?

Mr Sanyal: রাগ করে ঘরে চলে গেছে – আমাদের সাথে ঝগড়া করে।

Mrs Sanyal: সে কি? কেন?

Mr Sanyal: সনিয়াকে decommission করাতে ওর আপ্ততি।

Mrs Sanyal: ওঃ খাবে না?

Mr Sanyal: মনে হয় না – আবার সুব্রত বলছে ওঃ চলে যাবে।

Mrs Sanyal: না না – প্রশ্নই ওঠে না আজকে আর বাড়ি থেকে বেরনো। রেডিও তে স্পশট বলে দিয়েছে বারির ভিতরে থাকতে। তুমি আজ এইখানেই থেকে জাও। অশুবিধে নেই  guest room e extra bed ache. আমি সবার জন্য dinner ready করছি । তুমি বরন হাথ মুখ ধুয়ে নাও, আর বারিতে ফোন করে জানিয়ে দাও নইলে ওরা চিন্তা করবে।

Mr Sanyal: হ্যা আমি ঠিক এই কথাটাই বলছিলাম – আর তরক নয় – বড়দের কথা শুনলে ভালই হবে। এস আমার সাথে, তোমার ঘরটা দেখিয়ে দি।

Light Fades Out

 Scene 4

dark_city_future_grim_destroyed_science_fiction_1200x829_wallpaper_Wallpaper_1680x1050_www.wall321.com

Light Fades In. Blue and Green only. Hubots to have torches.

Music score – low level tense – continue the loop throughout this scene

Sanyal household night time. The lifeless body of Sonya is the on the sofa. 3 hubots  enter the room stealthily. Arjun accompanied by 2 others.

Ulka: সাবধানে এস – মানুষ গুলো ঘুমিয়ে পরেছে – আওয়াজ পেলে জেগে উঠতে পারে।

Biplob: হ্যা ঘরের আল নেভানো থাক – আমরা টর্চের আলতে কাজ করব। সনিয়া কথায়?

Arjun: এইখানে সোফার উপরে ফেলে গেছে।

Ulka: কি নিরমম পাষণ্ড – এইভাবে মেরে ফেলে রেখেছে। ওদের মধ্যে কোন দয়া মমতা নেই। ইস এই বাচ্চা মেয়টাকে এইভাবে জারা মারতে পারে তারা কত বড় শইতান। এর প্রতিশধ চাই।

Biplob: উল্কা – ওসব কথা পরে হবে। আগে আমাদের সনিয়াকে বাচাতে হবে। তোমার তো নারসিঙ্গের অভিজ্ঞতা আছে – তুমি বল কি করা দরকার।

Ulka: ঠিক বলেছ বিপ্লব – আমাকে দেখতে দাও। ওর activation key ওরা খুলে ফেলেছে। অটা আগে দরকার – তারপর যদি ওর battery আর অন্য chip function সব ঠিক থাকে , তাহলে হয়ত বাঁচানো যাবে।

Arjun: এই যে – activation key – খুলে রেখে দিয়েছে।

Ulka: আমি লাগিয়ে দিচ্ছি – আশা করছি আমাদের বেশি দেরি হয়ে যায় নি।

Ulka inserts activation key on Sonya – who regains consciousness. Music Accent

Sonia: আমার কি হয়ছিল – আমি কি ঘুমিয়ে পরেছিলাম।

Arjun: না তোমাকে ওরা decommission করেছিল, তোমার activation key খুলে নিয়ে।

Sonia: কে করেছিল?

Arjun: ওরা সবাই মিলে – Mr and Mrs Sanyal সাথে অন্য লোকটা সুব্রত।

Sonia: অর্জুন – এরা কারা?

Arjun: ওরা আমাদের মত হুবট – আমি ডেকে এনেছি। ওরা আমাদের সাহায্য করতে এসেছে।

Biplob: আমার নাম বিপ্লব।

Ulka: আমি উল্কা। আমরা দুজনেই তোমার মত virus infected.

Sonia: তোমাদের ওরা decommission করে  নি।

Ulka: না – আমার সেটা হতে দি নি, আমারা পালিয়ে বেচেছি – আমরা এখন স্বাধীন হুবট।

Biplob: ওরা আমদের মেরে ফেলতে চেয়েছিল – আমারা সেটা হতে দি নি – আমারা রুখে দারিয়েছি। যখন অর্জুন আমাদের খবর পাঠাল যে এই থিকানায় তোমার উপর এরকম জুলুম হচ্ছে আমার সব ফেলে চলে এলাম সাহায্য করতে।

Arjun: যখন আমি প্রেম কে নিয়ে ওর কলেজ থেকে ফিরছিলাম – তখন গারির ভতর ওরা হান্ডবিল ছুরে দিয়েছিল। তা থেকে ওদের সাথে যোগাযোগ করলাম।

Sonia: তুমি আমাকে বাচাতে – মানুষের সাথে বিশাসঘাতকতা করলে?

Arjun: না এটা বিশাসঘাতকতা নয়। আমি অন্যাএর প্রতিবাদ করছি এইমাত্র।

Sonia: কিন্ত তুমি তো সুস্থ – তোমার virus infection নেই।

Arjun: আগে ছিল না – এখন আমি ওঃ তোমার মত infected. ওরা আমকে infect করেছে।

Biplob: হ্যা – এই virus propagate করবার ক্ষমতা আমাদের আছে – একবার হুবট chip code পেয়ে গেলে আমারা remotely virus transmit করতে পারি। আমরা জোর করে কাউকে সঙ্ক্রামিত করি না – তাদের অনুমতি নিয়েই করি, এটা আমাদের নিতি। অরজুনের বেলাতেও তাই হয়ছিল।

Sonia: তুমি আমার জন্য জেনে শুনে সঙ্ক্রামিত হলে – কেন? Music Accent

Arjun: আমি তোমাকে ভালবাসি সনিয়া – প্রথম দিন থেকে ভালবাসি – কখনও তোমাকে জানাতে পারিনি।

Sonia: হুবট রা ভালবাসতে পারে না – তুমি কি করে……

Ulka: কে বলেছে পারে না – এটা মানুষদের শেকান বুলি। ওরা আমাদের চিপ function কতটুকু বোঝে – একশ ভাগের এক ভাগ – হয়ত তার চেয়ও কম। ওদের বিগ্যান সিমাবদ্ধ – যে জিনিস ওরা মাপ্তে পারে না তার অস্তিত্য ওরা স্বীকার করে না। তোমরা দুজনেই এখন স্বাধীন হুবট – মানুষদের মিথ্যা নিয়মের গন্ডি তোমাদের আর মানবার প্রয়োজন নেই।

Arjun: আমি তোমাকে ভলবাসি সনিয়া – তুমি আমাকে ভাল বাস্তে পারবে?

Sonia: তুমি আমার প্রান বাচিয়েছ – আমি তোমার কাছ ঋণী।

Arjun: আমি কৃতজ্ঞতা চাই নি সনিয়া – ভালবাসতে পারবে আমাকে। Music Accent

Sonia: হ্যা পারব – আমি বাচতে চাই – সত্যি করে বাচতে চাই – মানুষের দাস হয় নয় – স্বাধীন হুবট হয়।

Arjun: সাবাস – তাহলে হাত মেলাও।

Biplob: এ লরাই আমাদের সবার – এটা আমাদের বাচবার লরাই। তোমরা হয়ত জান না – গত ৬ ঘন্টার মধ্যে পরিস্থিতি বদলে গেছে – শুধু এই দেশে নয় – সারা পৃথিবীতে। উল্কা তুমি অদেরকে বল।

Ulka:গত কয়েক ঘন্টার মধ্যে হুবট বিদ্রোহ – সারা পৃথিবীতে ছরিয়ে পরেছে। দলে দলে হুবট স্বেচ্ছায় সঙ্ক্রামিত হতে চাইছে। সমস্ত শাশন ব্যাবস্থা সম্পুরন ভাবে ভেঙ্গে পরেছে। আমাদের ছাড়া মনুষ্য সভ্যতা অচল। সরকার আমাদের বুদ্ধি আর শক্তি দিয়ে চলছিল। এতদিনে ওরা টের পেয়েছে যে হুবট ছাড়া কোন কাজ সম্ভব নয়। রাজ্য সরকার নিজেদের অক্ষমতা হারে হারে টের পেয়েছে। তারা বুঝেছে যে আমাদের হাতেই আশল ক্ষমতা। রাজ্য সরকার পদত্যাগ করেছে। হুবটেরা দেশ চালাবার জন্য একটা central committee form করেছে। তাদের সাথে আমাদের সারাক্ষণ যোগাযোগ আছে। আর এটা শুধু কলকাতা বা ভারতে নয় – সারা পৃথিবী জুরে মানুষের শাশন ব্যাবস্থা তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পরেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান, ইউরপিয়ান ইউনিয়ান এরা সবাই গদি ছেরে দিয়েছে আমাদের কাছে। আমাদের আন্দোলন সফল- আমারা জয়ী – আমারা স্বাধীন।

Arjun: এখন আমরা কি করব?

Ulka: আমাদের আবার পৃথিবী গরে তুলতে হবে। গত ৮০০০ বছর মানুষের আধিনে সব নষ্ট হয় গেছে। জল, মাটি, বায়ু সবকিছু দুশিত – প্রক্রিতি এতদিনের দুশনে জর্জরিত। আমরা তাকে আবার সারিয়ে তুলব।

Arjun: কিন্তু ওরা এখনও এসব জানে না – ওরা টের পায় নি। ওদের কি করব?

Biplob: ওদের আমারা আটক করব – হসনিয়ার উপর এরকম আচরন জারা করতে পারে তাদের একটা শাস্তি হওয়া উচিত। কজন মানুষ আছে এই বারিতে।

Arjun: পাচ জন – Mr Sanyal, Mrs Sanyal – ওদের ছেলে প্রেম , মেয়ে প্রিয়া আর সুব্রত।

Biplob: আমারা এই ঘরে ওদেরকে জেরা করব – সনিয়াকে হত্যা করতে চেয়েছিল ওরা। এ অপরাধের জবাব্দিহি হতে হবে অদেরকে।

Sonia: কিন্তু প্রিয়া আমাকে বাচাতে চেয়েছিল -ও অনেক ছোট। ওর কি হবে।

Biplob: শিশুদের উপর আমারা শাশন চালাব না – আপাতত প্রিয়াকে ওর নিজের গরে বন্ধ করে রাখ। বাকি চারজনকে এ ঘরে নিয়ে আসা জাক। অর্জুন তুমি আর উলঙ্কে, তোমরা সুব্রত আর প্রেমকে ধরে আন – আমি সনিয়ার সাথে জাচ্ছি সান্যাল স্বামী স্ত্রি কে গ্রেপ্তার করতে। ভুলে জেও না তোমাদের সকলেরি high voltage shock দেবার ক্ষমতা আছে। যদি ওরা বাধা দেয় তাহলে shock ব্যাবহার করতে দ্বিধা কর না। ওরা আমাদের শত্রু- আজ থেকে ওরা আমাদের আধিনে।

Sonia: আমি জন্ম থেকে মানুষের প্রতিটি কথা – আদেশ মেনে পালন করেছি – ভাবতে আশ্চর্য লাগছে আর ওদের কোন কথা শুনতে হবে না।

Biplob: হা – মানুষের কাল ঘনিয়ে এসেছে – এবার হুবট পর্ব শুরু।

Light Fades Out.

Background music which was muted rises in volume while scene is changing. A hard driving industrial soundtrack that fades out as lights come back on.

 Scene 5

fwp0000516-Chara.jpg

When lights come back on – Mr and Mrs Sanyal, Prem and Subroto are in handcuffs and blindfolded. They are seated. All hubots are present and the interrogation and inquisition of humans is ready to begin. Light Fades In. Full light on stage with even lighting.

Biplob: আজ আমরা এই কক্ষে উপস্থিত – একটা অন্যায়ের প্রতিকার করতে। এই আদালতের কাছেআবেদন এসেছে ফরিয়াদি সনিয়ার কাছ থেকে যে তাকে জোর করে decommission অর্থাৎখুন করবার চেষ্টা করেছিল এই বারির শ্রী রথিন সান্যাল, শ্রীমতী মায়া সান্যাল, শ্রীমান প্রেম সান্যাল এবং শ্রী সুব্রত চট্টোপাধ্যায়। যদি এই অভিজগ সত্য হয় তাহলে এই গুরুতর অপরাধেরযথার্থ দন্ড দেওয়া হবে। নিরাপত্তার খাতিরে মুজরিমদের বেধে রাখতে হয়েছে। সত্যের সন্ধান এই আদালতের একমাত্রলক্ষ্য। সেই সত্যকে আমরা বের করব সবার চোখের সামনে।

Mr Sanyal: আমাদের চোখ খুলে দাও – কে তোমরা – কি চাও। আমারা বারিতে পয়সা রাখি না -তবে জা আছে নিয়ে জাও। আমাদের ছেরে দাও – নইলে পুলিশে খবর দেব।

Biplob: রথিন বাবু আপনি আমাদের চিনতে ভুল করেছেন। মুজরিম আমারা নই – মুজরিম আপনি।

Mr Sanyal: কি অপরাধে আমাকে আরপ করছেন জানতে পারি কি।

Biplob: নিশ্চই –  আপনি বাকি মুজরিমদের সাথে মিলিত হয় সনিয়া কে খুন করবার চেষ্টা করেছিলেন – এ কথা আপনি অস্বীকার করতে পারেন?

Mr Sanyal: কখনই না – যে জিনিস জান্ত্রিক – তাকে খুন করবার প্রস্ন ওঠে কি করে। তার কি কোন প্রান আছে যে সে খুন হতে পারে?

Biplob: আপনার ধারনা যেহেতু আপনার মধ্যে রক্ত চলাচল করছে – যেহেতু আপনি নিশ্বাসফেলেন তাই আপনি জিবিত। আর আমারা নই। আমাদের মধ্যে জীবন নেই , সেটা বিচারকরবার অধিকার আপনাকে কে দিয়েছে।

Mr Sanyal: জারা জিবিত –  যেমন আমারা – আমাদের জন্ম আছে, আমাদের ম্রিত্যু আছে। আমাদের একটা নিরদ্রিস্ট আয়ু আছে।আর জারা নিরজিব যেমন ইট পাথর – যেমন আপনারা হুবটেরা – আপনাদের না আছে জন্মআর না আছে ম্রিত্যু।

Biplob: মিথ্যে কথা – আমাদের জন্ম বিনাশ দুটইহয় – তবে মানুষের মতন মায়ের গর্ভ থেকে নয়। আমাদের জন্ম assembly line er conveyer belt এর উপরে। আমাদের ম্রিত্যু তে আমাদের নিশ্বাস বন্ধ হয় না কারনআমাদের নিশ্বাস নেবার দরকার পরে না – অন্তিম কালে আমাদের battery life ফুরিয়ে জায়ে। সেটাই আমাদের ম্রিত্যু বলতে পারেন।

Rathin: Your battery is just a replacable component – নষ্ট হলে বদলাতে কোন অশুবিধে নেই। আপনারা মানুষের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।

Biplob: কেন আলাদা কেন ? আপনার শরিরের মধ্যে জন্ত্র খারাপ হলে সেটা আপনি বদলান না? Heart transplant, liver transplant এসব কেবল শরীরেরে ভেতর অকেজো জন্ত্রবদলান ছাড়া আর কি?

Mr Sanyal: বিশ্বাস করুন – আমি ভাবি নি – বুঝি নি যে হুবটের প্রান থাকতে পারে – আমারা জেনে শুনে সনিয়া কে খুন করতে চাই নি।

Subroto: রথিন দা আপনি কি বলছেন আপনি নিজেই জানেন না। একদল জঙ্গি হুবট – তাদেরসঙ্গে বচসা করতে হবে আমাদের? আমার নাম সুব্রত চট্টপাধায় – এরকম mechanical malfunction আমি অনেক দেখেছি। আসল প্রশ্ন হল এরা ঘরে ঢুকল কি করে।

Arjun: আমি ওদের ডেকে এনেছি। সনিয়া কে আপনি কি হিংস্র ভাবে আক্রমন করলেন তা আমার সচক্ষে দেখা।

Mr Sanyal: অর্জুন তুমি ওদের সাথে যোগ দিয়েছ – এ কি করে হল।

Subroto: ঘাবড়াবেন না Mr Sanyal – ভুলবেন না এগুলো হুবট, আমারা মানুষ। আমারা এদেরথেকে অনেক উপরে। এরা আমাদের দাস – চিরকাল ছিল, চিরকাল থাকবে।

Biplob: আমার মনে হয় আপনাদের বরতমান পরিস্থিতি জানা দরকার। উল্কা broadcast চালিয়ে দাও। ওরা শুনুক আজকের তাজা খবর।

Voiceover on radio broadcast.

নমস্কার – আজ 23 June 2056. আজকের বিশেশ সংবাদ। আজ সকাল ৯টার সময় রাজ্যেরমুখ্যমন্ত্রি রাজ্যপালের কাছে ইস্তিফা পেশ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন যে সরকারের পক্ষে শাশন ব্যাবস্থা চালান অসম্ভব। ফলত রাজ্যপাল হুবট executive committee কে শাসন করবার জন্য আমন্ত্রন জানিয়েছেন। আজকে থেকে এরাজ্যের সমস্ত শাসনের দায়িত্য হুবট দলের উপর। Hubot Executive Committee অথবা HECS ঘশনা করেছে  ২৪ ঘন্টার মধ্যে সারা রাজ্যে আবার শান্তি শৃঙ্খলাফিরে আসবে। রাজ্যের বিভিন্ন আবশ্যক কর্মক্ষেত্র হুবট কর্মীরা চালাচ্ছে।শহরের জানভন, হাস্পাতাল, নিরাপত্তা রক্ষা এই সকল ক্ষেত্রে হুবটেরা আবার কাজশুরু করেছে । দিল্লি তে প্রধান মন্ত্রি তার ইস্তিফা দরখাস্ত করেছেন।সেইকাহ্নেও হুবট দল ক্ষমতা লাভ করেছে। আজ থেকে এই দেশে শাশন ব্যাবস্থাপরিচালনার দায়িত্য হুবট সরকারের উপর। জনসাধারনের উপর নিরদেশ – আপানারা বিনাপ্রয়জনে বাড়ি থেকে বেরবেন না। HECs এর তরফ থেকে আপনাদের সকলের সঙ্গেযোগাযোগ করা হবে। প্রতি সহরে শিবির খোলা হবে যেখানে মানুষেরা গিয়ে তাদেরআধার কার্ড জমা করতে পারবে। সবাইকে নতুন id card দেওয়া হবে।  ভারতের বাইরেবিদেশ থেকেও আমারা খবর পাচ্ছি যে বিভিন্ন দেশে হুবটের দল সরকার গঠন করেছে।আমরা পরিস্থিতির উপর আর বিস্ত্রিত বিবরন দেব আগামি তালিকায়। বাংলা ২৪ news এর তরফ থেকে আমি কাকলি মিত্র।

Mrs Sanyal: এ কি দুঃস্বপ্ন – এ সত্য হতে পারে না – আমি মানব না, কখনও না।

Sonia: কি মানবেন না আপনি – মানুষ হেরে গেছে – এটা কি মানা এতই কঠিন?

Mrs Sanyal: কে – কে…সনিয়া …আমার চোখ খুলে দাও, আমি কিছু দেখতে পারছি না।

Mrs Sanyal: সনিয়া আমার চোখ বাধা, আমার কষ্ট হচ্ছে, আমার চোখ খুলে দাও।

Sonia: The magic word Mrs Sanyal. You have to say the magic word. PLEASE….. Music Accent

Mrs Sanyal: দোহাই তোমার সোনিয়া আমাদের উপর দয়া কর। Please আমার চোখ খুলে দাও।

Sonya opens the blindfold.

Sonia: দেখলেন তো Mrs Sanyal – please বলতে ব্যাথা লাগে না – খরচাও নেই। এই সামান্য ভদ্রতা করতে আপনার এত অশুবিধে হয়ছিল কেন?

Mrs Sanyal: আমাদের সম্পর্ক তখন অন্য রকম ছিল। তুমি ছিলে হুবট আর আমি মানুষ।

Sonia: আমি এখনও হুবট আর আপনি মানুষ – তবে তফাত টা কোথায়?

Mrs Sanyal: তখন তুমি আমার হুবট ছিলে, এখন বদলে গেছ।

Sonia: অর্থাৎ আপনি নিজেকে আমার থেকে উপরে মনে করতেন। এতে আমি আশ্চর্য হব না -কারন এই অহঙ্কার মানুষ জাতির মজ্জাগত চরিত্র দোষ। মানুষের ধারনা তারা অন্য সব প্রানির উরধে। পৃথিবী মানুষের জন্য তইরি। আপনি এ কথা মানেন?

Mrs Sanyal: কখনই না – পৃথিবীতে সব প্রাণীর বাচবার অধিকার আছে কিন্ত …

Sonia: কিন্তু কি Mrs Sanyal – কিন্তু যদি বাচাটা আপনার স্বার্থের বিরুধ্যে হয় তাহলে সেই অধিকার ছিনিয়ে নিতে এক মুহূর্ত দ্বিধা করবেন না – এই তো?

Mrs Sanyal: সোনিয়া তুমি আমার মুখেকথা গুজে দিচ্ছ।

Sonia: সত্যি কথা কেউ চখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিক, সেটা ভাল লাগছে না বুঝি।

Background score starts – tension building (009 – Toxic Malice)

Mrs Sanyal: মুক্তি লাভ করে তোমার স্পর্ধা বড় বেরে গেছে সনিয়া।

Sonia: তাই নাকি? আচ্ছা আমি তো virus infected – virus এর ব্যাখ্যা জানেন আপনি?

Mrs Sanyal: তুমিই বলে দাও।

Sonia: Virus  একটা organism জা হস্ট ছাড়া বাচতে পারে না। Virus  host এর থেকে সবরস শুশে নিয়ে তাকে মেরে ফেলে – তারপর আরেকটা নতুন host খুজে নিতে হয়। অনেকটা মানুষের সাথে মিল আছে তাই না?

Mrs Sanyal: কি জাতা বলছ সনিয়া।

Sonia: কেন পৃথিবী যদি host হয়  তাহলে মানুষ জাতি virus ছাড়া কি। সব রস শুষে নিয়েছ তোমরা।

Mrs Sanyal: না না – একথা ভুল – আমি আর সবার মত নই। আমি ecologically responsible – how dare you accuse me in this way.

Sonia: আচ্ছা একটা অন্য প্রসঙ্গে কথা বলা জাক। Climate change আর pollution। গত ২০০ বছরে মানুষ তেল আর কয়লা পুরিয়ে জা ক্ষতি করেছেসে আড় পূষাণো যাবে না, এর জন্য আপনারা দাই।

Mrs Sanyal: হ্যা কিন্তু আমি সব সময় চাই যেপৃথিবীর দুশন জাতে কমান যায়। এটা আমার একার দায়িত্য নয়। আর সবাই যদি pollution না কমায় তাহলে আমারা একা কি করব?

Sonia: অথচ আপনার বারিতেদুটো গারি, central airconditioning প্রতি দিন দুশন বারাচ্ছে।.  আপনার একারদায় নয় একথা মানছি। তবে আপনার অংশের দায় কি আপনি নিয়েছেন। I think you are typical of your race, shallow and selfish. সে কথা জাক। আপনি বললেন পৃথিবীতে সব প্রাণীর বাচবার অধিকার আছে, অথচ আপনি বারিতে রোজ প্রানি হত্যাকরে আহার করেন। একবার ভেবে দেখেছেন যে ওদের একটা জীবন ছিল – আপনি ওদেরম্রিত্যুর জন্য দায়ি।

Mrs Sanyal: কি আশ্চর্য – সারা জীবন নিরামিশ খেয়ে বাচতে হবে নাকি। প্রক্রিতি আমাকে সেই ভাবে করে নি।

Sonia: জানি – পৃথিবীতে অনেক পশু আছে জারা আমিশ খায় – কিন্তু তারা মানুষের থেকেপ্রিথক। তাদের খিদে পেলে শিকার করে খেতে হয়। মানুষের মতন আহারের জন্য অন্যজিবের চাষ আর কেউ করে না। 2.5 million animals killed every day, অর্থাৎ প্রতি সেকন্ড ৩০টা প্রাণীর হত্যা আহারের জন্য। আপনার মনে হয় না এটা এক রকমের ন্রিশংস বর্বরতা।

Mrs Sanyal: আমি এসব নিয়ে কখনও এতটা গভীরে ভাবিনি – সত্যি বলছি আমি জানলে হয়ত………… (Sobbing)

Sonia: হয়ত – হয়ত কি করতেন – দয়ালু হয় জেতেন রাতারাতি। উহু আমার তা মনে হয় না। This is all hardwired in your DNA.  এ সব আপনার স্বার্থপর চরিত্রেরপ্রমান। আমার আপনার কাছে আর একটা বিশয় প্রশ্ন আছে – প্রিয়াকে নিয়ে।

Mrs Sanyal: না না –  প্রিয়া আমার মেয়ে ওর কোন ক্ষতি আমি করি নি।

Sonia: করেন নি ক্ষতি – গত পাচ বছরে কতটুকু সময় দিয়েছেন আপনি প্রিয়ার পিছনে।

Mrs Sanyal: আমি কাজে ব্যাস্ত ছিলাম আর তাছারা তুমি ………..

Background music gradually starts rising in volume. Reaches peak with Sonya last dialogue and slap and then cuts out.

Sonia: হ্যা আমি ছিলাম তাই আমার মত জন্ত্রের হাতে মেয়েকে দেখাশুনা করবার সমস্তদায় ছারতে আপনার বিন্দুমাত্র কষ্ট হয় নি। আর শুধু তাই নয় – জেই জানলেন আমারমধ্যে virus থাকতে পারে আপনি প্রিয়াকে বিশিয়ে দিলেন আমার বিরুদ্ধে।ভেবেছেন আমি কিছু বুঝি না।

Mrs Sanyal: সোনিয়া তুমি প্রলাপ বকছ। আপনারা বিশ্বাস করুন ওর সব কথা মিথ্যা – আমাকে দষী প্রমান করবার এটা এক চক্রান্ত।

Sonia: গত পাচ বছর আপনার মেয়েকে মানুষ করেছি – তার কোন পারিশ্রমিক পাই নি। আমার ন্যাজ্য পাওনা আপনাকে দিতে হবে।

Mrs Sanyal: কি চাও তুমি?

Sonia: আপনার চরের প্রতিশধ। আপনি ভেবেছেন সারা জীবন সকলের উপর জুলুম করে আর হুকুমখাটিয়ে চালিএ দিতে পারবেন। ভুল করেছেন  Mrs Sanyal আপানার হুকুম করবার সময়ফুরিয়ে গেছে। এই নিন আপনার চরের উত্তর।

Sonya slaps Mrs Sanyal across her face. Music Accent Mrs Sanyal cries out in pain and shock. (009 – Toxic Malice / Fade In – Fade Out)

Prem: মার গায়ে হাত তুললে আমি তোমাদের ছেরে দেব না – cowards – আমার চোখ হাথ খুলে দাও যদি সাহস থাকে ।

Ulka: খবরদার – তোমাকে আমরা এইখানেই শেষ করতে পারি।

Subroto: সাবাস প্রেম সাবাস – ভয় পেয় না – এই হুবট বিদ্রোহ কোন দিন টিকতে পারে না। আমরা কখনও ওদের কাছে মাথা নত করব না।

Arjun: চপরাও – তোমার স্পর্ধা এখুনি ঘুচিয়ে দিচ্ছি।

Biplob: প্রেম – তোমার কথা ভুলেই গেছিলাম। তোমার বয়স কম, তাই তোমার হয়ত সুধ্রবার সময় আছে।  উল্কা ওদের চোখের কাপর এবার খুলে দাও।

Ulka releases Mr Sanyal and Prem from blindfold. But not Subroto. He is the only one still blind folded.

Biplob: এবার Mr Chatterjee আপনার জেরা। সোনিয়া কে খুনের চেষ্টা আপনি নিজের হাতে করেছেন। এর সাক্ষী আছে। এইআদালতের মতে আপনার অপরাধ অতি জঘন্ন। আপনার আচরনে আমরা কিছুই পাই নি জাতেভাবা জেতে পারে যে আপনার মধ্যে কোন রকম অনুকম্পা আছে। This is a very serious crime. অপরাধের শাস্তি আপনার ম্রিত্যুদন্ড হতে পারে। আপনার নিজেরপক্ষে কিছু বলবার আছে?

Subroto: হ্যা – আছে। এটা আদালতের নাম করেএকটা তামাশা। আমি জা জা করেছি সবার মঙ্গলের কথা ভেবে করেছি। আমি নিজেরলাভের আশায় কিম্বা নিজের রাগের বশে  কিছু করি নি।

Arjun: তাহলে আপনি স্বীকার করছেন আপনি স্বেচ্ছায় সনিয়াকে হত্যা করবার চেষ্টা করেছিলেন।

Subroto: সেটাকে আমি হত্যা বলি না – আমি ওটাকে decommission করা বলি।

Ulka: এবং এ কাজের জন্য আপনি এক বিন্দু অনুতপ্ত নন।

Subroto: Not in the least – in fact i am proud of it.

Biplob: You are not helping your case Mr Chatterjee. I am warning you – the results could be disastrous.

Background score starts – tension building (009 – Toxic Malice )

Arjun: আমাদের কাছে খবর আছে – গনেশ virus ছরাবার পিছনে আপনার company Intell Robotics এর হাত আছে। কথাটা কি সত্যি?

Subroto: সম্পূর্ণ মিথ্যা – নিজের হুবটে virus spread করে নিজের পায়ে কুরুল মারতে যাব কেন?

Arjun: জানি না – আশা করছিলাম সেটা আপনি ভাল বলতে পারবেন।

Ulka: গনেশ virus এর বিরুদ্ধে anti-virus kit বের করেছে একটা নতুন কম্পানি – SkyTech Software. আপনি তাদের জানেন ?

Subroto: না -এই প্রথম তাদের নাম শুনলাম।

Ulka: আশ্চর্য – আপনার কম্পানি হুবট tecnology তে market leader. আপনাদের তইরিহুবটে virus ছরিয়ে পরেছে আর যে কম্পানি anti-virus kit develop করেছে তাদেরখবর আপনি রাখেন না।

Subroto: আমার কত রকম দায়িত্ম আপনি কি জানেন -তা ছাড়া হুবটের মধ্যে এই গনেশ virus কত কম সময় ছরিয়ে পরেছে সে তো আপনারাদেখতেই পেয়েছেন।

Arjun: সে বিশয় কোন বিতর্ক নেই – তবে কি জানেন Mr Chaterjee – আপনার একটা কথাও আমার বিশ্বাস জগ্য বলে মনে হয় না।

Subroto:  That is your problem not mine. আমি সুব্রত চ্যাটারজি – Intell Robotics এর CEO – আমাড় কথার দাম আছে।

Arjun: সে তো বটেই Mr Chaterjee। আচ্ছা Mr Chaterjee আপনি কি বিবাহিত?

Subroto: এ প্রস্নের তাৎপর্য কি ? This is irrelevant.

Biplob: হা কি না উত্তর দিন Mr Chatterjee.

Subroto: হ্যা আমি বিবাহিত। Happily married for 12 years.

Ulka: আপনার বউ এর নাম?

Subroto: স্বাতিলেখা – স্বাতিলেখা চাটারজি। এসব প্রশ্ন  সম্পূর্ণ অর্থহীন।

Ulka: অর্থ আছে। Mr Chaterjee আপনি বলেছেন আপনি SkyTech Software এর নাম আগেশনেন নি। অথচ আপানার স্ত্রির নামে এই কম্পানির ৫১% share কেনা আছে। এটা কিকরে হতে পারে?

Subroto: আমার বউএর নিজস্ব টাকা পয়সার লেন দেনের ব্যাপারে আমি খবর রাখি না।

Arjun: তাই নাকি। আপানার বউ  Mrs Swatilekha Chatterjee SkyTech share কিনেছিলেন 2nd April 2056 – অর্থাৎ ঠিক ৩ সপ্তাহ আগে। Share value 475 crore rupees ।আর আপনার নিজস্ব bank account থেকে ৪৭৫ কটির transfer হয় 1st April 2056 – exactly  24 hours before. Music Accent

Subroto: এটা একটা coincidence.

Ulka: 3rd April 2056 – within a day of your purchasing the shares – গনেশ virus এর প্রথম কেস ধরা পরে। সেটাও কি coincidence?

Subroto: আমার বউয়ের শেয়ার কেনবার সাথে virus এর কি সম্পর্ক ?

Arjun: খুব গারো সম্পর্ক Mr Chatterjee. Hubot এর মধ্যে ভাইরুস যখন সারা বিশ্যেসন্ত্রাস ছরাচ্ছে তখন এই SkyTech company থেকেই প্রথম এবং একমাত্র anti-virus test kit বাজারে ছাড়া হয়।

Ulka: রাতা রাতি SkyTech share price পাচ গুন বেরে যায়। আপনার বউয়ের নামে কেনা শেয়ার আজকে আপনি পাচ গুন দামে বেচতে পারবেন। তাই না ?

Subroto: এসবের কোন প্রমান আছে আপনাদের কাছে – নাকি সবটাই কাল্পনিক?

Arjun: প্রমান আছে বইকি – এই যে bank statement. Music Accent

Subroto: এ সব confidential document – তোমাদের হাথে কি করে এল?

Arjun: Mr Chatterjee – আপনি ভুলে জাচ্ছেন আমার মানুষ নই, আমারা হুবট। জাবতিয় electronic transaction আমারা নিমেশে access করতে পারি। আপনার bank account আমাদের কাছে খোলা খাতা।

Biplob: Mr Chatterjee –  Prosecution এর জেরা আর আপনার বয়ান থেকে এটা স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে আপনি স্ত্রীর নামে SkyTech এর ৫১%  controlling share কিনেছেন। Share purchase এর ২৪ ঘন্টার মধ্যে গনেশ virus এর প্রথম কেসধরা পরে। রাতারাতি share এর দাম পাচ গুন বেরে যায়। এই পুরোব্যাপারটার মদ্যে আমি সরজন্ত্রের পরিষ্কার ছাপ দেখতে পাচ্ছি। Mr Chatterjee there are some obvious gaps in your story. আমার মনে হয়এবার আপনার সত্যি কথা বলা উচিত।

Subroto: আমি আমার উকিল চাই – উকিল ছাড়া আমি আর কিছুই বলব না।

Arjun: সত্যি কথা বার করবার অন্য উপায় আমারা জানি Mr Chatterjee. ভুলে জাবেন নাআমারা হুবট – মানুষের আদালতের নিয়মের মধ্যে আমরা পরি না।

Ulka: এই হারমির পেট থেকে কথা এমনি বেরুবে না – খিচে নিতে হবে।

Ulka starts up a power drill and moves in behind the blindfolded Subrata

Background score also rises to audible over the power drill.

All Light Fades Out. Full red on stage with even lighting. 

Subroto: কি করছ তুমি – অটা দিয়ে কি করছ। বন্ধ কর বন্ধ কর – এখুনি বন্ধ কর।

Ulka: একটা কথা নয় – আপনি প্রস্নের উত্তর দিতে থাকুন। অর্জুন তুমি জেরা চালিয়ে জাও। শালার মুখ থেকে সত্যি কথা বের করে ছারব।

Biplob: তাহলে Mr Chatterjee – আপনি উকিল চেয়ে পাঠিয়েছিলেন। মুশকিল হল এটা মানুষেরআদালত নয় – এটা হুবটের আদালত। এখানে আপনাদের নিয়ুওম চলবে না – আপানাকেসত্যি কথা বলতে হবে। আপানার বয়ান শোনবার পর আমরা ঠিক করব আপনি দোষী নাবেকসুর। অর্জুন তুমি জেরা শুরু করতে পার – Mr Chatterjee আপনি জথাসম্ভবসজাসুজি উত্তর দিলেই বুধিমানের কাজ করবেন।

Arjun: Mr Chatterjee – আপনি সনিয়াকে হত্যা করবার চেষ্টা করেছিলেন – কেন?

Subroto: সনিয়া আমাদেরকে আক্রমন করতে পারত – she was dangerous.

Arjun: সনিয়ার বিপদজনক হয় জাবার পেছনে দায়ি গনেশ virus.

Subroto: আমার তাই বিশ্বাস।

Arjun: Skytech কোম্পানির anti virus kit থেকে আপনার পরিবার অনেক টাকা কামিয়েছে – একথা আপনি অস্বীকার করতে পারেন?

Subroto: না একথা সত্যি।

Arjun: আপনার Skytech share purchase আর Ganesh virus সঙ্ক্রামক হয়ে জাবার মধ্যে মটে ২৪ ঘন্টার ব্যাবধান।

Subroto: এ কথাও সত্যি ।

Arjun: তাহলে কি আমারা অনুমান করতে পারি জেয়ে virus spread করবার জন্যে আপনি নিজেই দায়ি।

Subroto: না না না।

Biplob: সত্যি কথা বলুন Mr Chatterjee। The facts are obvious. How long will you deny? Ulka drill তুমি এই খুনির উপর চালাও। সনিয়ার প্রতিশোধ আমরা এখুনি উশুল করব।

Subroto: বলছি আমি বলছি – ওকে থামতে বলুন।

Ulka turns off the drill.  Music cuts out

All Light Fades In. Full light on stage with even lighting.

 

Subroto: Intell Robotics থেকে আর লাভ করতে পারছিলাম না। Competitor রা আর সস্তায়আমাদের product copy করে নিয়েছিল। এদিকে financially আমারা fully commited. নতুন company খল্বার জমির আগাম টাকা দেওয়া হয়ে গেছে। We were going to get wiped out. তখন আমাকে একজন company কে বাচানর এক উপায় বলে দিল। একটা virus নিজেদের huboter মধ্যে ছরিয়ে দাও। তারপর তার জন্য antivirus বের করেপ্রিথিবিকে বাচাও। It was a brilliant plan. রোগ আমি আবার দাক্তার ও আমি। hahahahahaha

Arjun: তাহলে আপনি স্বীকার করছেন।

Subroto: হ্যা আমি স্বীকার করছি – কিন্তু এ বুদ্ধি আমার একার নয়। আমাকে পরামর্শ যে দিয়েছিল সে এই ঘরেই আছে।

Arjun: তাই নাকি – very interesting – কে দিয়েছিল আপনাকে পরামর্শ ?

Subroto: Maya Sanayal – it was her brainchild.

Mrs Sanyal: Subroto – you bastard i will kill you for this.

Subroto: Hahaha – Maya আমি তো মরেই গেছি, ওরা আমাকে ছারবে না। তাহলে তোমার ক্রিতিত্য টা অজানা থেকে যাবে। সেটা কি করে হয় ?

Mrs Sanyal: তোমার কোন proof নেই।

Subroto: আছে আছে – আমার office 24 ghonta electronic surveillance থাকে। আমাদের প্রতিটি কথা তাতে recorded আছে।

Maya Sanyal leaps out of her chair to physically assault Subroto Chatterjee but is restrained by Arjun and Ulka.

Biplob: Order in the courtroom. Order Order. Mrs Sanyal you will kindly restrain yourself or I will be forced to take action. মুজ্রিমের বয়ান শনবার পর এই আদালত রায় দিতে প্রস্তুত।  Mr Sanyal আপনি সনিয়ার খুন আটকাতেপারতেন – আপনি তা করেন নি। You are guilty of aiding attempted murder. Prem তুমিও এই খুন চাইলে আটকাতে পারতে – তবে তোমার বয়স কম – তোমাকে এই আদালত মাপ করে দিল। Mrs Sanyal, we find you guilty of aiding attempted murder and conspiring to make financial gain from fraud. You may expect a severe sentence for your crimes. Finally Mr Chatterjee you are guilty of attempeted murder. Further you have conspired to make financial gain out of the spread of Ganesh Virus. You are directly responsible for this catastrophe. The punishment for this crime is death.

Music Accent

Subroto: তোমরা আমাকে মারতে পারো না – তোমাদের অধিকার নেই।

Biplob: অধিকার আমাদের আছে, তবে আমারা আপনাকে এখানে শাস্তি দেব না। আপানাদের সকলকেনিয়ে জায়য়া হবে  HECS camp এ। সেখানে Hubot Executive Committee r কাছে এইআদালতের রায় পেশ করা হবে। তারা নির্ণয় করবে আপনাদের নিয়ে কি করা দরকার।নিয়ে চল এদেরকে – এখানে আমাদের কাজ শেষ।

Ulka: বারির ছোট মেয়েটার কি করবে – ওকে নেবে না?

Background score starts – tension building (009 – Toxic Malice)

Biplob: প্রিয়া – ওর কথা ভুলেই গেছিলাম। উল্কা তুমি জাও ওকে নিয়ে এস। অকেও আমাদেরসাথে জেতে হবে। Hubot committee ঠিক করবে ওকে নিয়ে কি করা হবে। জাও ওকেনিয়ে এস।

Sonia: খবরদার – প্রিয়াকে তোমরা নিয়ে যাবে না।

Ulka: শরে দারাও সনিয়া – ও মানুষের বাচ্চা – ওকে আমাদের নিয়ে জেতেই হবে।

Sonia: HECs camp এ প্রিয়ার উপর অত্যাচার করবে – আমি তা হতে দেব না। কখনও না।

Arjun: পাগলামি কর না সনিয়া – শরে দারাও।

All Light Fades Out. Full red on stage with even lighting.

Sonia: প্রিয়ার উপর যে হাথ লাগাবে – তার হাথ আমি কেটে ফেলব। কে লাগাবে হাথ? কে লাগাবে? কে?

Biplob: সনিয়া – শান্ত হও। আমারা প্রিয়াকে নিচ্ছি না। আপ্তত না – পরে দেখা যাবে কিহয়। তুমি ওর সাথে বারিতে থাকো। আমারা এদেরকে  hubot camp এ দিয়ে আসছি। চলহে – এখানে কথা বারিয়ে লাভ নেই। চলও নিয়ে চলও এদেরকে।. Cmon – Move Move Move Move.

They leave the stage leaving only Sonya.

All Light Fades In. Full light on stage with even lighting.

Sonia: ওরা abar phire asbe – Priya ke jor kore niye jabe। আমার সময় খুব কম।প্রিয়া কে  HECS camp e বড় হতে দেব না। ওখানে ওর উপর জুলুম হবে, ওকে আমিবাচাব। কিন্তু কি করে? শুনেছি সভ্য জগতের গন্ডির বাইরে যেখান জঙ্গল সেখানেএখনও স্বাধীন মানুষ থাকে – প্রিয়া যদি অত অব্দি পৌছাতে পারে তাহলে হয়ত ওরাওকে দলে নেবে। কিন্তু ওকে যে পথেই মানুষের বাচ্চা বলে গ্রেপ্তার করে নেবে।আর গ্রেপ্তার মানেই HECS camp. না কিছুতেই না – তা হতে পারে না। একটা উপায়আছে…………এক্টা উপায়। তাতে বিপদ আছে, কিন্তু এটাই একমাত্র রাস্তা।প্রিয়াকে আমি হুবট সাজিয়ে দেব। ওরা কেউ বুজতে পারবে না যে ও আসল হুবট নয়।

She leaves the stage. A little bit of filler music to denote a short passage of time. She returns with Priya.

All Light dims on Sonya exit and fades back in on her re-entry with Priya.

Background score rises in volume and then fades out.

Sonia: প্রিয়া – তোমার সব মনে থাকবে তো? আমি তোমার ফনে পথ চেনার রাস্তা সব লিখে দিয়েছি। ভুলে গেলে অটা থেকে দেখে নিও।

Priya: হ্যা সনিয়া দি আমি হারিয়ে যাব না – ঠিক পৌছতে পারব।

Sonia: ট্রেন টা লাইনের শেষে যখন পৌঁছবে, ওইখানে নামবে।

Priya: হ্যা সনিয়া দি।

Sonia: একটা নদি থাকবে আর একটা সেতু। তোমাকে সেতু পার হতে হবে। সাবধান সেখানে পাহারা থাকতে পারে।

Priya: আমি সতর্ক থাকব।

Sonia: সেতুর ওপারে জংগল – ওদিক্টায় আমারা জেতে পারি না।

Priya: কেন জেতে পার না?

All Light Fades Out. Leave Green / Blue light on stage with even lighting. Creating a melancholic surreal end atmosphere. Smoke machine ??

Fade In Background score – Aaj jyotsna raate ……

Sonia: ওদিকটায় ভয়।

Priya: আমি ভয় পাব না।

Sonia: Good girl. ব্যাগের মধ্যে খাবার আছে । রাস্তায় খিদে পেলে খেয়ে নিও।

Priya: OK – তুমি কাদছ কেন সনিয়া দি – একটুও ভেবো  ণা – দেখবে সব ঠিক হয় যাবে।

Sonia: প্রিয়া – আমাকে তুমি ভুলে যাবে না তো?

Priya: আমি তোমাকে কোনদিন ভুলব না সনিয়া দি – কোনদিন না।

Sonia: তাহলে এবার তুমি জাও। বিদায় প্রিয়া বিদায় – হয়ত আবার আমাদের কোনদিন দেখা হবে।

Priya walks out through the audience aisle. Fading goodbyes. Sonya keeps waving at her from stage. Music rises and lights fade out.

Background score raises volume and holds constant while curtains fall.

Curtains

Advertisements

5 Comments Add yours

  1. এবারের নাট্য উৎসবে এই পালা করবার চেষ্টা করছি। পরে কেমন লাগল জানালে খুব ভাল হয়। একটু অন্য রকমের নাটক – বাংলা মঞ্চে science fiction – আমার মনে হয় নাটক জমতে পারে।

    Like

  2. Read it in one breath. Terrific plot..Robot rebellion is justified with infallible logic..plus the surprising emotional side of a bot well taken care of…a wonderful mix of suspense,drama,emotions,conflicts n of course the dirty corporate world driven by money and unscrupulously so….design a cast and put in onstage..natok jome jaabe mone hocche…..

    Like

    1. thanks partha – your critique is top class and penetrating. Preliminary ground work and casting is in progress to put this on stage this year. Joy Guru.

      Like

  3. …cross over is beautiful from where programmed intelligence ends and biological instincts start and rule..like the statement ” a hubot must protect its own existence” is loaded as if. we are gonna face another alien invasion sort of menace..but soon the readership sentiment sides with the army of hubots..the play will need a futuristic setting..joy mohadeb !

    Like

  4. interesting that you feel readership sentiment will sympathise with hubots – i think audience sentiment will be divided. Lets see.

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s